সৌদি লিগ নিয়ে গার্দিওলার উল্টো মত টেন হাগের

ইউরোপীয় লিগ ছেড়ে অনেক তারকা খেলোয়াড়ই ঠিকানা খুঁজে নিচ্ছেন সৌদি আরবে। সৌদি প্রো লিগের অর্থের ঝনঝনানি দলবদলের বাজারে কিছুটা হলেও প্রভাব ফেলেছে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ এরিক টেন হাগ মনে করছেন, তাতে প্রিমিয়ার লিগের কোনো সমস্যা নেই। বড় খেলোয়াড়দের পছন্দ ইপিএল।

৫৩ বর্ষী টেন হাগ বলছেন, ‘ইউরোপে সৌদি লিগের প্রভাব পড়তে পারে। কারণ সৌদি আরবের প্রচুর অর্থ আছে, যেটা খেলোয়াড়দের আকর্ষণ করছে। কিন্তু এই মুহূর্তে প্রিমিয়ার লিগের জন্য এটিকে কোনো সমস্যা হিসেবে দেখছি না।’

অন্যান্য লিগের তুলনায় জনপ্রিয়তায়, অর্থে এবং মানের দিক থেকে এগিয়ে থাকায় প্রিমিয়ার লিগের জন্য এটা সমস্যা হবে না বলেই মনে করছেন ইউনাইটেড কোচ। টেন হাগ বলছেন, ‘এটি এমন একটি লিগ যেখানে বড় খেলোয়াড়রা খেলতে চায়। প্রিমিয়ার লিগ আমেরিকা বা সৌদি আরবের লিগের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে না।’

এর আগে ম্যানসিটির ট্রেবলজয়ী রিয়াদ মাহরেজ আল আহলিতে যোগ দেয়ার পর এ ব্যাপারে কথা বলেছিলেন সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা। তার অবশ্য ভিন্নমত। বলেছেন, শীর্ষমানের ও অসাধারণ খেলোয়াড়রা ভবিষ্যতে সৌদি লিগে আরও বেশি যোগ দেবেন। যা ইউরোপের ক্লাবগুলোর জন্য হুমকি। তাই যা কিছু ঘটছে সে সম্পর্কে ক্লাবগুলোকে সচেতন হতে হবে।

গত জানুয়ারিতে ইউরোপ ছেড়ে সৌদি আরবে পাড়ি জমিয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তার দেখানো পথ ধরে ইউরোপ থেকে একে একে পাড়ি দিচ্ছেন তারকা ফুটবলার। রোনালদোর পর সৌদি ক্লাবগুলো চুক্তি করেছে করিম বেনজেমা, হেন্ডারসন ও রবের্তো ফিরমিনোর মতো বড় তারকাদের সঙ্গে। এমনকি বায়ার্ন মিউনিখ থেকে সাদিও মানে যোগ দেবেন আল নাসেরে, এমন খবরও আসছে।

আল-নাসেরইউনাইটেডগার্দিওলাটেন হাগপ্রিমিয়ার লিগম্যানসিটিরোনালদোলিড স্পোর্টসসৌদি প্রো লিগ