লিঙ্গান্তরিত সাঁতারুদের জন্য আসছে ‘ওপেন ক্যাটাগরি’

আন্তর্জাতিক সাঁতার সংস্থা (ফিনা) লিঙ্গান্তরিত অ্যাথলেটদের অংশগ্রহণের জন্য ‘ওপেন ক্যাটাগরি’ নীতি চালু করছে। নতুন নীতিতে প্রতিযোগীদের ১২ বছর বয়সের মধ্যে লিঙ্গান্তরিত হওয়ার প্রমাণ লাগবে, যাতে মেয়েদের প্রতিযোগিতায় তারা অংশ নিতে পারে।

হাঙ্গেরির পুসকাস অ্যারেনায় হওয়া কংগ্রেসে ১৫২টি দেশের সাঁতার ফেডারেশনের সদস্যদের ভোটাভুটিতে বিষয়টির নিষ্পত্তি হয়েছে। তৃতীয় লিঙ্গের অ্যাথলেটদের অংশ নেয়ার বিষয়ে নতুন নীতির পক্ষে শতকরা ৭১ ভাগ ভোট পড়েছে।

পরে ফিনা জানাচ্ছে, লিঙ্গান্তরের মাধ্যমে ছেলে থেকে মেয়ে হওয়া ক্রীড়াবিদরা কেবল তখনই প্রতিদ্বন্দ্বিতার যোগ্য হবেন, যখন তারা বয়ঃসন্ধিকালে এসে পৌঁছাননি অথবা ১২ বছর বয়সের আগে বয়ঃসন্ধিকাল হওয়ার লক্ষণগুলো শারীরিকভাবে অনুভব করেননি।

ফিনা সভাপতি হুসেন আল-মুসাল্লাম বলেছেন, ‘প্রতিযোগিতার জন্য আমাদের ক্রীড়াবিদদের অধিকার রক্ষা করতে হবে। ইভেন্টগুলোতে বিশেষ করে ফিনার প্রতিযোগিতায় মেয়েদের বিভাগে প্রতিযোগিতামূলক ন্যায্যতা রক্ষা করতে হবে।’

ফ্রি-স্টাইল সাঁতারু লিয়া থমাস পেনসিলভানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের হয়ে ২০১৭-২০১৯ সাল পর্যন্ত ছেলেদের ইভেন্টে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। পরে লিঙ্গান্তর ও প্রয়োজনীয় হরমোন থেরাপির শেষে তিনি চলতি বছর মেয়েদের ইভেন্টে অংশ নেন।

লিঙ্গান্তরিত হওয়া প্রথম সাঁতারু হিসেবে ২৩ বর্ষী থমাস মেয়েদের ৫০০ মিটার ফ্রি-স্টাইলে এনসিএএ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর তুমুল বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

ফিনালিঙ্গান্তরলিড স্পোর্টসলিয়া থমাসসাঁতার