লাইভ পরিবেশনার মধ্যেই পপতারকার মৃত্যু

বিজ্ঞাপন

লাইভ পারফরম্যান্সের সময় মঞ্চ ভেঙে পড়ে মৃত্যু হলো দক্ষিণ আফ্রিকার পপতারকা কোস্টা টিচের। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল মাত্র ২৮ বছর।

বিজ্ঞাপন

জানা গেছে,  শনিবার (১১ মার্চ) দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে আল্ট্রা সাউথ আফ্রিকা মিউজিক ফেস্টিভ্যালে গান পরিবেশন করার সময় মঞ্চ ভেঙে পড়ে যান কোস্টা টিচ। তাৎক্ষণিকভাবে সবকিছু সামলে আবারও গাইতে শুরু করেন তিনি।

তরুণ এ শিল্পীর প্রাণ শক্তি দেখে উল্লাসে ফেটে পড়েন দর্শকরা। কিন্তু খানিক সময়ের মধ্যে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন কোস্টা। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে তাকে মৃত ঘোষণা করে চিকিৎসক।

কোস্ট টিচের অফিশিয়াল ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে একটি বিবৃতি পোস্ট করেছে তার পরিবার। সেখানেই তার মৃত্যুর খবর জানানো হয়। এ বিবৃতিতে বলা হয়েছে— ‘দুঃখজনকভাবে আমাদের বাড়ির দরজায় মৃত্যু কড়া নেড়েছে। আমাদের প্রিয় পুত্র, ভাই এবং নাতি আমাদের ছেড়ে চলে গেছে।’

বিজ্ঞাপন

শিল্পীর পরিবার আরও জানিয়েছে, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার মানুষ তাকে কোস্টা টিচ নামেই চিনত। তার মৃত্যুর খবর জানার পর আমাদের বুক কষ্টে ফেটে যাচ্ছে। যারা তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিলেন তাদের ধন্যবাদ জানাতে চাই।’

এদিকে কোস্টা টিচের মৃত্যুর সঙ্গে অনেকেই প্রয়াত ভারতীয় সংগীত শিল্পী কেকের মৃত্যুর ভীষণরকম মিল পেয়েছেন। কেননা, তারা দু’জনেই লাইভ পারফরম্যান্সের মাঝে অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং আকস্মিকভাবেই তাদের মৃত্যু ঘটে। ফলে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও।

মাত্র ২৮ বছর বয়সে সাফল্যের শিখরে পৌঁছেছিলেন কোস্টা টিচ। বিগ ফ্লেক্সা, সুপারস্টার, মাহ গ্যাং, গোটের মতো গানগুলি বানিয়েছিলেন তিনি। রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রায় তিন লাখ মার্কিন ডলার সম্পত্তির মালিক ছিলেন তিনি। টিচ গ্যাং রেকর্ডস নামের রেকর্ড লেবেলও ছিল তার।

সূত্র:  মিরর

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

মৃত্যুলিড বিনোদনসুপারস্টার