ইমরান খানের বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগ

রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা ফাঁস করার অভিযোগে কারাগারে বন্দী প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারি তদন্ত শুরু করেছে পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ। ইমরান খানের বিরুদ্ধে একটি নতুন মামলায় তিনিসহ ৩ সহযোগীর নাম দেয়া উল্লেখ করা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে।

পাকিস্তানি একটি শীর্ষ নিরাপত্তা সূত্র জানিয়েছে, বর্তমানে তদন্তাধীন মামলাটি গত বছরের শুরুর দিকে ওয়াশিংটনে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত কর্তৃক ইসলামাবাদে পাঠানো তথ্যের সাথে সম্পর্কিত, যা ইমরান খান জনসমক্ষে প্রকাশ করেছিলেন বলে অভিযোগ করা হয়।

২০২২ সালে পার্লামেন্টে অনাস্থা ভোটে ইমরান খানকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য পাকিস্তানি সামরিক বাহিনীকে ঠেলে দেয়ার জন্য মার্কিন ষড়যন্ত্রের অংশ ছিল। কারণ, তিনি ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণের আগে মস্কো সফর করেছিলেন। তবে ওয়াশিংটন ও সামরিক বাহিনী উভয়েই তা অস্বীকার করেছে।

ইমরান খান বর্তমানে একটি দুর্নীতি মামলায় তিন বছরের সাজা ভোগ করছেন এবং পাঁচ বছরের জন্য রাজনীতি করা থেকে নিষিদ্ধ আছেন।

তদন্তের জন্য সরাসরি দায়ী পাকিস্তানি নিরাপত্তা সূত্র জানিয়েছে, আমাদের তদন্তে সরকারি গোপনীয়তা ফাঁসের অভিযোগে ইমরান খানকে অভিযুক্ত করার জন্য আদালতে মামলা করার জন্য প্রমাণ সংগ্রহ করছে।

তবে এই বিষয়ে ইমরান খানের দলের তথ্য সচিব রউফ হাসানকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করেননি।

ইমরান খানকে তার পদ থেকে অপসারণের পর থেকে তিনি রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছেন। দেশব্যাপী প্রতিবাদ আন্দোলন এবং তার বিরুদ্ধে ১০০ টিরও বেশি মামলা চলছে।

বিজ্ঞাপন

অভিযোগইমরান খানপাকিস্তানসাবেক প্রধানমন্ত্রী