১৪ বছরের আক্ষেপের অবসান নাকি প্রথমবারেই বাজিমাত

আইপিএল ফাইনাল

সবশেষ ২০০৮ সালে অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি শেন ওয়ার্নের নেতৃত্বে আইপিএল ট্রফি জিতেছিল রাজস্থান রয়্যালস। আর ট্রফি জেতা হয়নি দলটির। রোববার রাতে শিরোপা খরা কাটাতে গুজরাট টাইটানসের বিপক্ষে মাঠে নামবে রাজস্থান। বিপরীতে প্রথম আসরেই ফাইনাল নিশ্চিত করা গুজরাটের লক্ষ্য ট্রফি জিতে বাজিমাত করা।

চলতি আইপিএলে সবচেয় ধারাবাহিক দল হিসেবে ১৪ ম্যাচে ১০ জয়ে ২০ পয়েন্ট তুলে সবার আগে প্লে-অফ নিশ্চিত করে হার্দিক পান্ডিয়ার দল। এক ম্যাচ কম জিতে তার পরের অবস্থানেই ছিল রাজস্থান।

তবে মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে রয়েছে গুজরাট। এখন পর্যন্ত দু’বার মুখোমুখি হয়েছে ফাইনাল নিশ্চিত করা দল। যেখানে প্রথম দেখায় হার্দিক পান্ডিয়ার ৮৭ রানে ভর করে ১৯৩ রানের লক্ষ্য ছুড়ে গুজরাট। জবাবে জস বাটলারের ঝলমলে অর্ধশতকের পরও ৩৭ রানে হেরে যায় রাজস্থান।

পরের বার প্রথম কোয়ালিফায়ারে ফের মুখোমুখি হয় দু’দল যেখানে ১৮৭ রানের টার্গেট দিয়েও ৭ উইকেটের হার দেখতে হয়েছিল সাঞ্জু স্যামসনের দলের।

তবে সব হারের জবাব ফাইনালে দিতে পারে রাজস্থান। বোলিংয়ে আসর সর্বোচ্চ ২৬ উইকেট তুলে প্রতিপক্ষের মাথা ব্যথার কারণ যুজবেন্দ্র চাহাল। ব্যাটিং চার সেঞ্চুরি এরই মধ্যে হাঁকিয়ে ফেলেছেন বাটলার। ছুটছেন এক আসরে কোহলির করা সর্বোচ্চ ৯৭৩ রানের পিছনে। ফাইনালে এই ধারা বজায় রেখে কোহলিকে টপকাতে চাইবেন তিনি। সেক্ষেত্রে কপাল পুড়বে গুজরাটের।

তবে চলতি আসরে যেভাবে এতটা পথ পাড়ি দিয়েছে গুজরাট তাতে বিন্দুমাত্র ছাড় দেবে না পান্ডিয়ার দল। নিজেও যেমন তলোয়ারের মতো ব্যাট চালাতে জানেন তেমনি ডেভিড মিলারও ভয়ঙ্কর হতে পারে প্রতিপক্ষের বোলারদের জন্য।

আজ রাত সাড়ে আটটায় আহমেদাবাদে মাঠের লড়াইয়ে নামবে রাজস্থান-গুজরাট। যেখানে দু’দলেরই লক্ষ্য একটাই তা হল শিরোপা।

আইপিএল-২০২২কোহলিগুজরাট টাইটান্সচাহালপান্ডিয়াবাটলাররাজস্থান রয়্যালসলিড স্পোর্টসস্যামসন