ফাইনালের আগে ‘চাপে’ আছেন হালান্ড

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যানচেস্টার সিটিতে অভিষেক মৌসুমেই ‘ডাবল’ শিরোপা জয়ের স্বাদ পেয়ে গেছেন আর্লিং হালান্ড। মৌসুমজুড়ে আলো ছড়িয়েছেন গোলমেশিন খ্যাত নরওয়েজিয়ান। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে পারলে সিটির হয়ে ইতিহাস গড়বেন। প্রথমবার ইউরোপসেরার শিরোপা মঞ্চে দাঁড়াবেন হালান্ড, ম্যানসিটির শিরোপার স্বপ্নপূরণ হলে আশাপূরণ হবে তারও। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের আগে তাই খানিকটা চাপ অনুভব করছেন তারকা ফরোয়ার্ড।

ইস্তাম্বুলের আতাতুর্ক অলিম্পিক স্টেডিয়ামে শনিবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ৬৮তম ফাইনাল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যানসিটি ও ইতালিয়ান লিগ সিরি আ’র ইন্টার মিলানের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

ম্যাচের আগে হালান্ডের কাছে প্রশ্ন যায়, কোনো চাপ অনুভব করছেন কিনা। বলেছেন, ‘যদি এটা স্বীকার না করি, তবে সেটি মিথ্যা হবে। আমি এই ক্লাবে আসার আগে তারা প্রিমিয়ার লিগ জিতেছে। আমাকে ছাড়াই প্রতিটি ট্রফি জিতেছে। এখন ক্লাবটির হয়ে এমন একটি কাজ করতে এসেছি, যা আগে কখনও তারা করতে পারেনি। সেই লক্ষ্যে নিজেকে উজাড় করে দেয়ার চেষ্টা করব।’

২০২১ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রানার্সআপ হয়েছিল পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি। চলতি মৌসুমে ইতিমধ্যেই এফএ কাপ ও লিগ শিরোপা জিতেছে গার্দিওলার দল। এবার ‘ট্রেবল’ জয়ের সুযোগ সিটিজেনদের।

যদি শিরোপা জিততে পারে, তাতে প্রথমবার এই প্রতিযোগিতায় সেরা অর্জন হবে সিটিজেনদের। যে কারণে চাপ অনুভব করাটা স্বাভাবিক মনে করছেন হালান্ড। বলেছেন, ‘আমি এখানে আসার আগে তারা পরপর কয়েকবার লিগ জিতেছে। তারা ভালোভাবেই জানে প্রিমিয়ার লিগ কীভাবে জিততে হয়। এখন শুধু চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতা বাকি। আর আমিও এখানে বিশেষ কারণেই এসেছি।’

২২ বর্ষী হালান্ড এ মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৫২টি গোল করেছেন। যেখানে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আছে ১২টি। এ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। ইংল্যান্ডে এটি তার রেকর্ড-ব্রেকিং এক মৌসুম।

বিজ্ঞাপন

ইন্টারইপিএলচ্যাম্পিয়ন্স লিগপ্রিমিয়ার লিগম্যানসিটিলিড স্পোর্টসসিরি আহালান্ড