গোয়ায় এক টুকরো ঢাকা!

গোয়ায় জমে উঠছে আইএফএফআই এর ৫৩তম আসর

গত ২০ নভেম্বর থেকে ভারতের গোয়ায় শুরু হয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অব ইন্ডিয়া (আইএফএফআই) এর ৫৩তম আসর। উৎসবটির পর্দা নামছে ২৮ নভেম্বর। মর্যাদাপূর্ণ এই উৎসবে যোগ দিতে সেখানে অবস্থান করছেন বাংলাদেশের বেশকিছু তারকা মুখ।

মূলত এই উৎসবে নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশের চারটি সিনেমা। এরমধ্যে আছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ও গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত ‘পাপ পুণ্য’।

বাকি তিন সিনেমা হলো ‘খাঁচা’ খ্যাত নির্মাতা আকরাম খানের নতুন ছবি ‘নকশিকাঁথার জমিন’, ‘কমলা রকেট’ খ্যাত নির্মাতা নূর ইমরান মিঠুর দ্বিতীয় ছবি ‘পাতালঘর’ এবং খন্দকার সুমন পরিচালিত গণঅর্থায়নে নির্মিত ছবি ‘সাঁতাও’।

সিনেমা সংশ্লিষ্টরাই বর্তমানে গোয়ায় অবস্থান করছেন। উৎসবে সিনেমার প্রদর্শনী ছাড়াও নানা ইভেন্টে যোগ দিচ্ছেন তারা। ‘পাপ পুণ্য’র প্রতিনিধি হিসেবে উৎসবে আছেন নির্মাতা গিয়াস উদ্দিন সেলিম, আফসানা মিমি ও চঞ্চল চৌধুরী, ‘পাতালঘর’ এর প্রযোজক আবু শাহেদ ইমন ছাড়াও সেখানে আছেন এই ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্র চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া।

‘নকশিকাঁথার জমিন’ এর নির্মাতা আকরাম খান ছাড়াও গোয়া উৎসবে যোগ দিয়েছেন এই ছবির অন্যতম অভিনেত্রী জয়া আহসান, সেঁওতি, দিব্য জ্যোতি, সৌম্য জ্যোতি। দুই ভাইয়ের সাথে সেখানে দেখা গেছে তাদের মা-বাবা শাহনাজ খুশী ও বৃন্দাবন দাশকেও। এছাড়া সাঁতাও এর প্রতিনিধি করছেন স্বয়ং নির্মাতা খন্দকার সুমন।

চারটি সিনেমার মধ্যে ‘নকশিকাঁথার জমিন’ বাংলাদেশের একমাত্র ছবি হিসেবে ভারতীয় এই উৎসবে লড়বে ইউনেস্কো গান্ধী মেডেলের জন্য।

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) উৎসবস্থল আইনক্স পানজিম অডিটোরিয়াম ১-এ সকাল ৯টায় প্রদর্শিত হয়েছে আকরাম খানের ‘নকশিকাঁথার জমিন’। ছবিটি দর্শকের দারুণ প্রশংসা পেয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের গল্প ‘বিধবাদের কথা’ অবলম্বনে এ সিনেমায় ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলির কথা তুলে এনেছেন নির্মাতা। সরকারি অনুদানে নির্মিত এই ছবিটির প্রযোজনায় আছে টিএম ফিল্মস।

একই দিনে আইনক্স পানজিম অডিটোরিয়াম ৩-এ দেখানো হয়েছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত প্রশংসিত ছবি ‘পাপ-পুণ্য’। এই ছবিটিও দর্শকের ভূয়সী প্রশংসা পেয়েছে।

এছাড়াও গোয়ায় অনুষ্ঠিত ভিউয়িং রুমের ফিল্মবাজার রিকমেন্ডস বিভাগ থেকে ‘প্রসাদ ল্যাব ডিআই অ্যাওয়ার্ড’ ও ‘মুভিবাফ অ্যাপ্রিসিয়েশন আওয়ার্ড’ জিতেছে বিপ্লব সরকারের সিনেমা ‘আগন্তুক’। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) এ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।

এই চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিয়েছেন গাউসুল আলম শাওন, রেদওয়ান রনি, পিপলু আর খান, সরদার সানিয়াত হোসেন, আদনান আল রাজীব, বিজন ইমতিয়াজ সহ এই সময়ের বেশ ক’জন প্রযোজক ও পরিচালক।

অভিনয়আদনান আল রাজীবআবু শাহেদ ইমনগাউসুল আলম শাওনগিয়াস উদ্দিন সেলিমগোয়াজয়াজয়া আহসানঢাকানকশিকাঁথার জমিননুসরাত ফারিয়াপাতালঘরপাপ-পুণ্যপিপলু আর খানবিজন ইমতিয়াজরেদওয়ান রনিলিড বিনোদনসাঁতাওসিনেমা