মেয়ে হয়ে জন্মালেও এখন তিনি পুরুষ!

এ যেন পুনর্জন্ম! নিজের জন্মদিনে নিজেকেই সবচেয়ে বড় উপহার দিলেন মধ্যপ্রদেশের তরুণ। অলকা থেকে হলেন অস্তিত্ব। গ্রহণ করলেন বিয়ের শংসাপত্র। 

জানা যায়, ভারতের মধ্যপ্রদেশের ইনদওরে জন্ম অলকা সোনির। জন্মের কয়েক বছর পর তিনি বুঝতে পারেন নারী হয়ে জন্ম হলেও তার মধ্যে ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে পুরুষসত্তা। আস্থা নামের এক নারীর সঙ্গে সম্পর্কেও জড়ান তিনি। বহু বছর সম্পর্কে থাকার পর দীর্ঘ দিনের প্রেমিকাকে বিয়ের আগে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন। ৪৭তম জন্মদিনে অস্ত্রোপচারের পর অলকার যেন পুনর্জন্ম হয়। নিজের নাম পরিবর্তন করে রাখেন অস্তিত্ব।

বৃহস্পতিবার  (৯ ডিসেম্বর) দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে বিয়ের শংসাপত্র গ্রহণ করেন অস্তিত্ব এবং আস্থা।

আস্থা জানান, অস্তিত্বের সঙ্গে তার আলাপ বহু বছরের। অস্তিত্বের বোনের বান্ধবী ছিলেন আস্থা। সেই সূত্রেই অস্তিত্বের বাড়িতে যাতায়াত ছিল তার।

প্রথমে তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে উঠলেও সে সম্পর্ক প্রেমে গড়াতে বেশি সময় লাগেনি।

বহু বছর সম্পর্ক থাকার পর বিয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে দু’জনে নিজেদের পরিস্থিতি এবং তাদের সম্পর্কের সমীকরণ নিয়ে একে অপরের সঙ্গে বহু বার আলোচনা করেছেন বলে জানান আস্থা।

বিয়ের শংসাপত্র পাওয়ার পর সোমবার (১০ ডিসেম্বর) আনুষ্ঠানিকভাবে সাত পাকে বাধা পড়তে চলেছেন অস্তিত্ব এবং আস্থা।

অলকা থেকে অস্তিত্বভারতের মধ্যপ্রদেশের ইনদওরমেয়ে হয়ে জন্মালেও এখন তিনি পুরুষ