৫ দিনের যুদ্ধবিরতির বিনিময়ে ৭০ জিম্মিকে মুক্তি দিতে রাজি হামাস

চলমান ইসরায়েল-হামাস সংঘাত নিরসনে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কাতার। তাই এবার মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাতারকে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসের সশস্ত্র শাখা জানিয়েছে, ইসরায়েল যদি পাঁচ দিনের যুদ্ধবিরতিতে রাজি হয় তাহলে তার বিনিময়ে আটক ৭০ জন নারী ও শিশুকে মুক্তি দিতে প্রস্তুত রয়েছে হামাস।

এনডিটিভি জানিয়েছে, হামাসের সশস্ত্র শাখা আল-কাসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু উবাইদা বলেন, গাজা উপত্যকায় সর্বত্র সাহায্য ও মানবিক ত্রাণ প্রবেশের জন্য যুদ্ধবিরতির প্রয়োজন আছে।

তিনি জানান, ইসরায়েল যুদ্ধবিরতির জন্য ১০০ জিম্মিকে মুক্তির কথা জানিয়েছে। তবে আমরা প্রথম অবস্থায় ৭০ জনকে মুক্তি দিতে প্রস্তুত রয়েছি। ইসরায়েল যদি হামাসের প্রস্তাব মেনে নেয় তাহলে পাঁচ দিন গাজায় যুদ্ধ সম্পূর্ণভাবে বন্ধ রাখতে হবে।

এই বিষয়ে একজন ইসরায়েলি কর্মকর্তা জানিয়েছেন, দুই পক্ষ চুক্তিতে সম্মত হলে কয়েকদিনের মধ্যে চুক্তির ঘোষণা আসতে পারে। তবে চুক্তিতে ইসরায়েলের হাতে বন্দি ফিলিস্তিনি নাগরিকদের মুক্তির বিষয়টি স্পষ্ট নয়।

তিনি বলেন, জিম্মি ও বন্দীদের বিনিময়ের সাথে সম্ভবত পাঁচ দিনের একটি অস্থায়ী যুদ্ধবিরতি হবে। এই যুদ্ধবিরতি গাজায় ফিলিস্তিনি বেসামরিক নাগরিকদের জন্য আরও আন্তর্জাতিক সহায়তা প্রবেশের অনুমতি দিবে।

উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে হামলা চালিয়ে দেশটির কয়েকশ নাগরিককে জিম্মি করে নিয়ে যায় হামাস বাহিনী। এরপর জিম্মিদের উদ্ধার ও হামাস বাহিনীকে নির্মূল করতে গাজায় ব্যাপক হামলা শুরু করে ইসরায়েল। ইসরায়েলের হামলায় এখন পর্যন্ত মারা গেছেন সেখানকার ১১ হাজারেরও বেশি মানুষ যার বেশিরভাগই শিশু।

জিম্মিবিনিময়যুদ্ধবিরতিহামাস