অভিষেকেই ম্যাচসেরা, স্বপ্ন সত্যি হয়েছে ম্যাথুর

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে প্রথম দুটিতে একটি করে জয় তোলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড। শেষ ম্যাচটি রূপ নেয় ‘অঘোষিত ফাইনালে’। ম্যাচে প্রথমবার জাতীয় দল জার্সিতে নেমেছিলেন পেস-অলরাউন্ডার ম্যাথু ফোর্ড। অভিষেকেই হয়েছেন জয়ের নায়ক। ম্যাচ জয়ের সঙ্গে পেয়েছেন সিরিজ জয়েরও স্বাদ। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে দারুণ উচ্ছ্বসিত ২১ বর্ষী ম্যাথু।

বার্বাডোজে শনিবার রাতে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হয়েছিল সফরকারী ইংল্যান্ড। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ইংলিশদের ৪ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ জিতে নিয়েছে ক্যারিবীয় দল।

টেস্ট ও টি-টুয়েন্টিতে এখনও অভিষেক হয়নি ম্যাথুর। ঘরোয়া ক্রিকেটেও খুব বেশি ম্যাচ খেলেননি। লিস্ট ‘এ’ খেলেছেন ১৩টি। সবমিলিয়ে টি-টুয়েন্টি খেলেছেন ১৮টি। স্বল্প অভিজ্ঞতাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পারফর্ম করার জন্য যথেষ্ট ছিল, সেটা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেকে প্রমাণ করেছেন ম্যাথু।

বল হাতে প্রথম ওভারে নেন উইকেটের স্বাদ, পরে শিকার করেন আরও দুই উইকেট। রানতাড়ায় ব্যাট হাতেও রাখেন অবদান। অভিষেকে ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়ে ফোর্ড বলেছেন, ‘আমার মনে হচ্ছে স্বপ্নে বাস করছি। এটি আমার জন্য বিশেষ মুহূর্ত, স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো ব্যাপার।’

‘পর্দার আড়ালে অনেক কঠিন পরিশ্রম করেছি। ক্যাম্পে কঠিন অনুশীলন করেছি। ম্যাচটি আমার জন্য বিশেষ ছিল, এমন একটি সুযোগ করে দেয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। ঘরের মাঠের দর্শকদের সামনে, মা-বাবার সামনে, এটা হৃদয়স্পর্শী।’

টসে হেরে আগে ব্যাট করা ইংল্যান্ড শুরুতে বড় ধাক্কা খায়। বৃষ্টির কারণে ম্যাচ নেমে আসে ৪৩ ওভারে ও পরে ৪০ ওভারে। ইংলিশরা তোলে ৯ উইকেটে ২০৬ রান। পরে আবারও বৃষ্টিতে ক্যারিবীয়দের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৪ ওভারে ১৮৮। তারা ম্যাচ জিতে নেয় ১৪ বল হাতে থাকতেই।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২০০৭ সালের পর প্রথম ওয়ানডে সিরিজ জয়ের স্বাদ পেল উইন্ডিজ। ঘরের মাঠে ২৫ বছর পর এ সংস্করণে ইংলিশদের হারিয়ে সিরিজ জিতল তারা।

ইংল্যান্ডওয়ানডে সিরিজওয়েস্ট ইন্ডিজম্যাথু ফোর্ডলিড স্পোর্টস