সহজ জয়ে ডাচদের হোয়াইটওয়াশ করল ইংল্যান্ড

নিজেদের মাঠে আগের দুই ম্যাচের কোনোটাতেই প্রতিরোধ গড়তে পারেনি নেদারল্যান্ডস। জস বাটলার ও জেসন রয়ের দাপুটে ব্যাটিংয়ে শেষ ম্যাচেও হল তাই। সহজ জয়ে ডাচদের হোয়াইটওয়াশ করে ওয়ানডে সুপার লিগের শীর্ষস্থানে উঠে গেল ইংল্যান্ড।

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে বাংলাদেশের চেয়ে ২৫ পয়েন্টে পিছিয়ে ছিল ইংল্যান্ড।
ডাচদের বিপক্ষে সিরিজ শেষ হওয়ার আগে বাংলাদেশের কোনো খেলা না থাকায় টাইগারদের টপকে যাওয়ার সুযোগ ছিল মরগানের দলের। সেই সুযোগটাই বেশ ভালোভাবে কাজে লাগালো ইংলিশরা।

বুধবার আমস্টেলভিনে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে নেদারল্যান্ডসকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। ২৪৫ রানের লক্ষ্য তারা পেরিয়ে গেছে ১১৯ বল বাকি থাকতেই। ১৫ চারে ৮৬ বলে ১০১ রান করে ম্যাচ সেরা হয়েছেন রয়।

ভিআরএ গ্রাউন্ডে টস জিতে শুরুতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় উইকেট টম কুপার ও ম্যাক্সের ৭২ রানের জুটিতে ভালো কিছুর আভাস দিচ্ছিল স্বাগতিকরা। ৩৩ রানে কার্সের বলে ক্যাচ হয়ে সাজঘরে ফেরেন কুপার। তবে ক্যারিয়ারের সপ্তম ফিফটি তুলে নিতে ভুল করেননি ম্যাক্স।

চতুর্থ উইকেটে আবারও বড় জুটি গড়েন ব্যাস দে লীডি ও অধিনায়ক স্কট এডওয়ার্ডস। ৪০তম ওভারে ডাচদের রান ২০০ স্পর্শ করে। হাতে তখনও ৭টি উইকেট। তিনশর কাছাকাছি যাওয়ার হাতছানি ছিল। কিন্তু ব্যাটিং ধসে ডাচরা গুটিয়ে গেল ২৪৪ রানে।

আগের দুই ম্যাচে দুর্দান্ত পারফর্ম করা এডওয়ার্ডস এ ম্যাচে করেছেন ৬৮ রান। ম্যাক্স ৫০ ও বাস ডে লীডের ব্যাট থেকে আসে ৫৬ রান।

স্বাগতিকদের দুই বল বাকি থাকতে অলআউট করে দেওয়ার মূল কারিগর ডেভিড উইলি। এই পেসার ৩৬ রানে নেন ৪ উইকেট।

২৪৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ফিল সল্ট ও জেসন রয়ের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভালো শুরু পায় ইংল্যান্ড। ৪৯ রানে সল্টকে সাজঘরে ফেরান ভ্যান মিকিরেন। একই ওভারে শূন্য রানে বোল্ড হন ডেভিড মালন।

এরপর আর কোনো উইকেট হারায়নি ইংলিশরা। বাটলারকে নিয়ে ১৬৩ রানের জুটি গড়ে সফরকারীদের জয়ের বন্দরে নিয়ে যান রয়। ৭ চার ও ৫ ছয়ে বাটলার অপরাজিত ছিলেন ৮৬ রানে।

বিজ্ঞাপন

ইংল্যান্ডএডওয়ার্ডসওয়ানডে সুপার লিগনেদারল্যান্ডসবাটলাররয়লিড স্পোর্টস