নিহত পুলিশ আমিরুলের পরিবারের পাশে বিপিডব্লিউএন

বিজ্ঞাপন

দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় বিএনপি নেতাকর্মীদের নির্মম হামলায় নিহত পুলিশ সদস্য মো. আমিরুল ইসলামের পরিবারের পাশে দাঁড়াল বাংলাদেশ পুলিশ উইমেন নেটওয়ার্ক (বিপিডব্লিউএন)।

বিজ্ঞাপন

স্ত্রী ও সন্তানের ভরণপোষণ নির্বাহের লক্ষ্যে স্থায়ী আয়ের অংশ হিসেবে কমিউনিটি ব্যাংকে নিহত কনস্টেবল আমিরুলের স্ত্রীর নামে এক লাখ টাকার ফিক্সড ডিপোজিট করেছে বাংলাদেশ পুলিশের নারী সদস্যদের কল্যাণে গঠিত এ সংগঠনটি।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সের কনফারেন্স রুমে কনস্টেবল আমিরুলের স্ত্রীর হাতে এ অনুদানের চেক তুলে দেন ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান।

এসময় ডিএমপি কমিশনার নিহত আমিরুলের পরিবারের খোঁজ-খবর নেন। তিনি আমিরুলের পরিবারের ভবিষ্যৎ ব্যয়ভার নির্বাহে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে ডিএমপি কমিশনারের বদান্যতা ও আন্তরিক চেষ্টায় নিহত পুলিশ কনস্টেবল মো. আমিরুল ইসলামের মৃত্যুর ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তার পরিবারের হাতে পেনশনের চেক ও আনুতোষিক সুবিধা প্রদান করা হয়।

এ সময় বিপিডব্লিউএনের সভাপতি ও স্পেশাল ব্রাঞ্চের ডিআইজি আমেনা বেগম, বিপিডব্লিউএনের সহসভাপতি ও স্পেশাল ব্রাঞ্চের ডিআইজি শামীমা বেগম এবং বিপিডব্লিউএনের সাধারণ সম্পাদক ও ডিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক-লালবাগ বিভাগ), (অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতি প্রাপ্ত) আসমা সিদ্দিকা মিলিসহ ডিএমপির ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

গত ২৮ অক্টোবর বিএনপি-জামায়াতের সমাবেশে আসা মানুষের নিরাপত্তায় ভোর থেকেই পল্টন বক্স কালভার্ট রোডের মাথায় দায়িত্ব পালন করছিলেন কনস্টেবল আমিরুল। এসময় বিএনপি নেতাকর্মীদের নৃশংস হামলায় তিনি মারা যান।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ডিএমপি কমিশনারবিপিডব্লিউএনমো. আমিরুল ইসলাম