নগদকে ডিজিটাল ব্যাংকের অনুমোদনপত্র হস্তান্তর করল বাংলাদেশ ব্যাংক

বিজ্ঞাপন

দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ ডিজিটাল ব্যাংক হিসেবে কাজ শুরু করতে নগদ ডিজিটাল ব্যাংক লিমিটেডকে অনুমোদনের কপি হস্তান্তর করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। এরমধ্য দিয়ে দেশে ডিজিটাল আর্থিক খাতের প্রসারে সম্ভাবনার আরেকটি নতুন দুয়ার খুলে গেল।

বিজ্ঞাপন

বুধবার ২৫ অক্টোবর বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার তার কার্যালয়ে নগদ লিমিটেড-এর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুকের হাতে ডিজিটাল ব্যাংকের অনুমোদনের কপি বা লেটার অব ইনটেন্ট (এলওআই) হস্তান্তর করেন।

এ সময় বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু ফরাহ মোহাম্মদ নাসের, বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালক (বিআরপিডি) মোহাম্মদ শাহরিয়ার সিদ্দিকী, বাংলাদেশ ব্যাংকের অতিরিক্ত পরিচালক (বিআরপিডি) মো. মনিরুল ইসলাম ও নগদের নির্বাহী পরিচালক নিয়াজ মোর্শেদ এলিট প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নগদ ডিজিটাল ব্যাংক লিমিটেডকে অনুমোদনের কপি হস্তান্তরের সময় বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার শুভেচ্ছা জানান ও সফলতা কামনা করেন।

বিজ্ঞাপন

দেশের সাড়ে আট কোটি মানুষের আস্থার নাম নগদ। উদ্ভাবনী সব সেবা দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি মোবাইল আর্থিক সেবায় বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে। ফলে খুব অল্প সময়ে বিশাল গ্রাহকভিত্তি ও মার্কেট শেয়ার নিতে সক্ষম হয়েছে। এর ফলে বাজারে প্রতিযোগিতাও বৃদ্ধি পেয়েছে এবং গ্রাহকের তাতে লাভ হয়েছে। দ্রুত এগিয়ে চলার এই পথপরিক্রমায় দেশের দ্রুততম ইউনিকর্ন হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে স্বীকৃতিও পেয়েছে নগদ।

গত তিন বছর ধরে দেশে ডিজিটাল ব্যাংকের সেবা চালু করার জন্যে নীতিনির্ধারকদের কাছে অনুরোধ জানিয়ে আসছিল নগদ। বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন পাওয়ার ফলে সামনের দিনে ডিজিটাল ব্যাংকের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের দোড়গোড়ায় আধুনিক ডিজিটাল ব্যাংকিং সেবা নিয়ে যেতে ইতোমধ্যে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে নগদ ডিজিটাল ব্যাংক।

ডিজিটাল ব্যাংক বিষয়ে নগদ লিমিটেড-এর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক বলেন, আমরা দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ ডিজিটাল ব্যাংক প্রতিষ্ঠার জন্য আজ বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছ থেকে অনুমোদন পেলাম। সাধারণ মানুষ যারা নানা কারণে ব্যাংকে আসতে বাঁধা অনুভব করেন তাদের কাছেই সেবা নিয়ে হাজির হবে নগদ ডিজিটাল ব্যাংক। এই পদ্ধতিতে গ্রাহককে আর ব্যাংকে আসতে হবে না। বরং ব্যাংকই মানুষের হাতে হাতে ঘুরবে। এরমধ্য দিয়ে দেশের আর্থিক অন্তর্ভূক্তি বৃদ্ধিতে আরেকটি উদাহরণ সৃষ্টি হবে।

তিনি বলেন, আমরা চাই প্রথাগত ব্যবসায়ীর বাইরে যারা আছেন, তাদের কোনরকম জামানত ছাড়াই সিঙ্গেল ডিজিটে ঋণ প্রদান করব। পাশাপাশি ক্ষুদ্র সঞ্চয় স্কিম চালুসহ সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন কাজের সবকিছুর সমাধান দেবে ডিজিটাল ব্যাংক। এর মাধ্যমে স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের পথ আরও সুগম হবে।

সকল প্রকার অনুষ্ঠানিকতা এবং প্রস্তুতি শেষে স্বল্পতম সময়ে নগদ ডিজিটাল ব্যাংকের সেবা কার্যক্রম চালু করবে বলেও জানান নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

নগদ ডিজিটাল ব্যাংক লিমিটেডনগদকে ডিজিটাল ব্যাংকের অনুমোদনবাংলাদেশ ব্যাংক