১০ ডিসেম্বরে আওয়ামী লীগের সমাবেশের অনুমতি দেয়নি ইসি

ঘরোয়াভাবে কর্মসূচি পালন করবে
বিজ্ঞাপন

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ১০ ডিসেম্বর মানবাধিকার দিবসে রাজধানীতে আওয়ামী লীগের সমাবেশ বড় পরিসরে হচ্ছে না। ঘরোয়াভাবে কর্মসূচি পালন করা হবে। নির্বাচন কমিশন অনুমতি না দেওয়ায় এই সিদ্ধান্ত বলে জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ৬০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট সংলগ্ন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানো শেষে তিনি এ কথা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এই মানবাধিকার দিবসে আমরা বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে একটি বড় সমাবেশ করব, এরকম একটা কর্মসূচি আমাদের ছিল। আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে আবেদন করেছিলাম। সে আবেদন তারা গ্রহণ করেননি। বাইরে সমাবেশের নামের শোডাউন হবে সে আশঙ্কা করছে। এ কারণে দশ তারিখে আমাদের মানবাধিকার দিবসের আনুষ্ঠানিকতা ভেতরেই পালন করব। বাইরে যে সমাবেশ করার কথা সেটি করছি না। নির্বাচনী বিধির বাইরে আমরা যেতে চাই না।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গণতন্ত্রকে সুশৃঙ্খল রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করছেন। গণতন্ত্র আছে, থাকবে। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র ত্রুটিমুক্ত করতে কাজ করছে। যারা নির্বাচন বানচাল করতে হরতাল-অবরোধ করছে তারা গণতান্ত্রিক শক্তি নয়।

বিজ্ঞাপন

এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাপা, কৃষি ও শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক আব্দুল আউয়াল শামীম প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

১০ ডিসেম্বরআওয়ামী লীগওবায়দুল কাদেরবড় পরিসরে হচ্ছে নাসমাবেশ