ভারত-অস্ট্রেলিয়া ফাইনাল মহারণ: ইতিহাস কী বলছে

কয়েকঘণ্টা পরই গড়াবে ওয়ানডে বিশ্বকাপের ১৩তম আসরের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ। দশ দলের বিশ্বকাপ থেকে এবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দৌড়ে লড়বে স্বাগতিক ভারত ও অস্ট্রেলিয়া। আহমেদাবাদে রোহিত বা কামিন্সের শিরোপা উঁচিয়ে ধরার মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে দেড়মাস ধরে চলা মহাযজ্ঞের। হাইভোল্টেজ ফাইনালের আগে দেখে নেয়া যাক দুদলের পরিসংখ্যানের খতিয়ান।

আহমেদাবাদে এক লাখ ৩০ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতার নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে রোববার রোহিত শর্মার দলের বিপক্ষে নামবে প্যাট কামিন্সের দল। দিবারাত্রির ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর আড়াইটায়। সবমিলিয়ে বিশ্বকাপের পাঁচটি ম্যাচ হয়েছে এই ভেন্যুতে।

মুখোমুখির দীর্ঘ পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে জয়ের পাল্লা ভারি অস্ট্রেলিয়ার দিকে। ১৫০ ওয়ানডেতে অজিদের ৮৩ জয়ের বিপরীতে ভারত জিতেছে ৫৭টিতে। বাকি ১০ ম্যাচ শেষ হয়েছে ফল ছাড়াই। তবে টাই হয়নি কোনো ম্যাচ।

৫৭ জয়ের মধ্যে ৩৩ ম্যাচে ঘরের মাঠে জয় পেয়েছে ভারত। প্রতিপক্ষের মাঠে ১৪ ও নিরপেক্ষ ভেন্যুতে ১০ জয় আছে আসরের স্বাগতিকদের ঝুলিতে। অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়া নিজেদের মাটিতে জিততে পেরেছে ৩৮ ম্যাচ। ৩৩ ম্যাচ ভারতের মাঠে এবং নিরপেক্ষ ভেন্যুতে ১২ জয় আছে প্যাট কামিন্সদের।

বিশ্বকাপের পরিসংখ্যানেও এগিয়ে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। ১৩ ম্যাচে তাদের ৮ জয়ের বিপরীতে দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারতের জয় ৫টিতে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভারতের সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন স্কোর ৩৫২ ও ১২৫, অজিদের ৩৫৯ ও ১২৮ রান। বিশ্বকাপের ফাইনালে আগে একবার মুখোমুখি হয়েছিল দুদল, ২০০৩ আসরে যাতে জিতে শিরোপা নিয়ে ফিরেছিল অস্ট্রেলিয়া।

গ্রুপ পর্যায়ে ভারত ও সাউথ আফ্রিকার কাছে হারের পর টানা আট ম্যাচে জয় তুলে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। বিপরীতে লিগপর্বে প্রতিটি ম্যাচে রোহিতের দল নিজেদের মতো করেই সাজাতে পেরেছিল চিত্রনাট্য। এখন পর্যন্ত অপরাজিত আছে টিম ইন্ডিয়া।

অস্ট্রেলিয়াআহমেদাবাদইতিহাসওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০২৩ওয়ানডে বিশ্বকাপ ২০২৩ সেমিলিডকামিন্সনরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামেভারতরোহিতলিড স্পোর্টস