এক দুর্ঘটনায় জীবন পাল্টে গেল ‘আশিকী’ নায়িকার

১৯৯০ সালে মুক্তি প্রাপ্ত মহেশ ভাট পরিচালিত ‘আশিকী’ ছবি দিয়ে বলিউডে অভিষেক করে রাতারাতি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন সিনেমাটির নায়িকা অনু আগারওয়াল। অথচ এক দুর্ঘটনাই শেষ করে দেয় তার জীবন-যৌবন!

১৯৯৯ সালে ভয়ঙ্কর এক দুর্ঘটনার শিকার হন অভিনেত্রী। এতটাই গুরুতরভাবে জখম হয়েছিলেন তিনি যে কিছুদিনের জন্য কোমায় চলে গিয়েছিলেন। প্রায় ২৯ দিন আই সি ইউ- তে থাকার পর অবশেষে জ্ঞান ফেরে নায়িকার। নিজেকে আর চিনতে পারলেন না তিনি। ভুলে গেলেন নিজের সব কিছু। শুধু মনে ছিল নিজের সন্ন্যাস জীবনের নাম।

এক সময় চিকিৎসকরা বলেছিলেন বেশি দিন বাঁচবেন না এই অভিনেত্রী। তবে সেই সংকটময় সময় পার করে নিজের মনের জোর আর যোগাভ্যাসের জোরেই আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন অভিনেত্রী।

জানা গেছে, মুম্বাইতে যোগাসনের স্কুল খুলেছেন তিনি। সেখানে বস্তির বাচ্চাদেরও যোগাসন শেখান তিনি। খুব সাধারণ ভাবে জীবন যাপন করেন। সঙ্গী বলতেও তেমন কেউ নেই তার। তাইতো এখন একাই জীবন কাটাচ্ছেন এই অভিনেত্রী। বিয়েও করেননি।

‘আশিকী’র মধ্য দিয়ে পর্দায় বাজিমাত করলেও বেশ কিছু ছবিতে বোল্ড চরিত্রে দেখা গেছে অনু আগারওয়ালকে। রাকেশ রোশনের ‘কিং অ্যাঙ্কেল’ সহ ‘রিটার্ন অফ জুয়েল’ ও ‘খলনায়িকা’ ছবিতে নজর কেড়েছেন অনু আগারওয়াল।

১৯৬৯ সালের ১১ জানুয়ারি নয়াদিল্লিতে জন্ম হয়েছিল অনু আগারওয়ালের। পড়াশোনাতেও মেধাবী ছিলেন তিনি। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞানে গোল্ড মেডেল পাওয়া ছাত্রী।

১৯৮৮ সালে ‘ইসি বাহানে’ ধারাবাহিকের মধ্যে দিয়েই আত্মপ্রকাশ করেন অনু। সেখান থেকে বড় পর্দায় অফার এবং ‘আশিকী’। লস অ্যাঞ্জলসে মডেলিংয়ের ভাল অফার পেয়েছিলেন অনু।

সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস বাংলা

বিজ্ঞাপন

অনু আগারওয়ালআশিকীবলিউডসিনেমা