৮২ বছরের রেকর্ড ভাঙলেন ইয়াসির

আবুধাবিতে ৮২ বছরের রেকর্ড ভেঙে নায়ক বনে গেছেন ইয়াসির শাহ। সবচেয়ে কম টেস্ট খেলে ২০০ উইকেট নেয়ার কৃতিত্ব গড়েছেন পাকিস্তানি লেগস্পিনার। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টেস্টে এই কীর্তি গড়েন ইয়াসির।

প্রথম ইনিংসেই এই রেকর্ড ভাঙার সুযোগ ছিল ইয়াসিরের। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে তিনটির বেশি উইকেট নিতে পারেননি। দরকার ছিল আরও দুই উইকেট। বৃহস্পতিবার টেস্টের চতুর্থদিনের শুরুতেই কাজটা সেরে ফেলেন ইয়াসির।

আবুধাবি টেস্ট খেলতে নামার আগে ইয়াসিরের উইকেট ছিল ৩২ টেস্টে ১৯৫টি। রেকর্ড গড়তে দরকার ছিল আরও ৫ উইকেট। এই সিরিজে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক ইয়াসির। নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংসে ৩ উইকেট নেয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে টম লাথামকে তুলে নিয়ে ১ উইকেট দূরে ছিলেন। সমারভিলকে আউট করে ২০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক লেগস্পিনার ক্ল্যারি গ্রিমেট ১৯৩৬ সালে জোহানেসবার্গ টেস্টে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ২০০তম উইকেটের দেখা পেয়েছিলেন ক্যারিয়ারের ৩৬তম টেস্টে।
ইয়াসির সমারভিলকে আউট করার আগ পর্যন্ত গত ৮২ বছর ধরে টেস্টে গ্রিমেটই ছিলেন দ্রুততম ডাবলের রেকর্ডধারি। বৃহস্পতিবার সেই গ্রিমেটকে পেছনে ফেলে ইয়াসির ডাবলের দেখা পান ক্যারিয়ারের ৩৩তম ম্যাচে।

সময়ের হিসেবেও অজি তারকাকে পেছনে ফেলেছেন ইয়াসির। গ্রিমেট সময় নিয়েছিলেন ১০ বছর ৩৫৩ দিন। ইয়াসিরের লাগল মাত্র ৪ বছর ৪২ দিন।

সময়ের হিসেবে অবশ্য ইয়াসির চতুর্থ দ্রুততম। শীর্ষে আছেন অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি শেষ ওয়ার্ন। তিনি সময় নিয়েছিলেন ৩ বছর ৩৪০ দিন। ওয়ার্নের চেয়ে ৮দিন বেশি সময় নিয়েছিলেন ইংল্যান্ডের সাবেক অফস্পিনার গ্রায়েম সোয়ান। তার চেয়ে আবার কম সময়ে ২০০তম উইকেট তুলে নিয়েছিলেন আরেক ইংলিশ তারকা অলরাউন্ডার ইয়ান বোথাম। এ কিংবদন্তি অলরাউন্ডারের সময়টা ৪ বছর ৩০ দিন। বোথামের চেয়ে ১২দিন বেশি সময় লাগল ইয়াসিরের।

ইয়াসিরের কীর্তির দিনে প্রথম ইনিংসের পর দ্বিতীয় ইনিংসেও সমস্যায় নিউজিল্যান্ড। চতুর্থ দিনে দ্বিতীয় ইনিংসে ৬৪ রানেই ৪ উইকেট হারিয়েছিল তারা। এখন অবশ্য কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়েছে সফরকারী। ৪ উইকেট হারিয়েই ১৩০ রানের গন্ডি পেরিয়ে গেছে কেন উইলিয়ামসনের দল।

নিজের প্রথম ইনিংসে ২৭৪ রানে অলআউট হয় নিউজিল্যান্ড। জবাবে পাকিস্তান তাদের প্রথম ইনিংসে করে ৩৪৮ রান।

ইয়াসির শাহপাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড সিরিজ