৮টি নাটক নিয়ে লোক নাট্যদলের উৎসব

আগামী ৬ জুলাই লোক নাট্যদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এবার লোক নাট্যদলের ৩ যুগ পূর্তি হচ্ছে। এ উপলক্ষে লোক নাট্যদল নিজেদের ৮টি নাটক নিয়ে উৎসব আয়োজন করেছে। ৫ জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার লবিতে উৎসবের উদ্বোধন হবে। আর জাতীয় নাট্যশালায় মঞ্চস্থ হবে দুটি নাটক— সুকুমার রায়ের ‘অবাক জলপান’ আর তারিক আনাম খান রূপান্তরিত মলিয়েরের ‘কঞ্জুস’। ৬ জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মঞ্চস্থ হবে অধ্যাপক আব্দুস সেলিম অনুদিত গাও সিং জিয়ানের ‘মাঝরাতের মানুষেরা’, ৭ জুলাই বিকেল ৪টায় ‘মুজিব মানে মুক্তি’, ৫টায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নাটক ‘ডাকঘর’, সন্ধ্যা ৬টায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘রথযাত্রা’ ও সন্ধ্যা ৭টায় ময়মনসিংহ গীতিকার অবলম্বনে পদাবলি যাত্রা ‘সোনাই মাধব। ৮ জুলাই উৎ​সবের শেষ দিন সকাল ১১টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হবে ‘লোক নাট্যদলের কর্মমুখর তিন যুগ’ শিরোনামের সেমিনার। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন পশ্চিমবঙ্গের প্রখ্যাত নাট্যগবেষক আশীষ গোস্বামী। এদিন সন্ধ্যায় পরীক্ষণ থিয়েটারে ‘লীলাবতী আখ্যান’ দিয়ে শেষ হবে উৎসব।

উৎ​সব উপলক্ষে আজ সোমবার দুপুরে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির সেমিনার কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। এখানে উৎসবের ঘোষণা দেন দলটির প্রধান লিয়াকত আলী লাকী। আরও উপস্থিত ছিলেন কৃষ্টি হেফাজ, ইয়াসমিন আলী, স্বদেশ দাশগুপ্ত, জিয়াউদ্দিন শিপন, রুবেল শংকর, ড. মাহফুজা হিলালী, মাসউদ সুমন, আজিজুর রহমান সুজনসহ লোক নাট্যদলের নির্বাহী কমিটির অন্য সদস্যরা।

১৯৮১ সালের ৬ জুলাই ধানমন্ডির ৩২ নম্বর সড়কে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাড়িতে নাট্যজন লিয়াকত আলী লাকীর নেতৃত্বে নাট্যপ্রেমী একঝাঁক তরুণের সম্মিলনে যাত্রা শুরু করে থিয়েটার সংগঠন লোক নাট্যদল।

উৎসবলোক নাট্যদল