রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের ধর্মঘট, রাজপথ-রেলপথ অবরোধ

বকেয়া পাওনাসহ ৯ দফা দাবিতে খুলনা-যশোর অঞ্চলের ৯টিসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকরা ৭২ ঘণ্টা মিল ধর্মঘটের পাশাপাশি ৪ ঘন্টা রাজপথ-রেলপথ অবরোধ কর্মসূচি পালন করছে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার সকালে মিলের উৎপাদন বন্ধ করে পাটকলের হাজার হাজার শ্রমিকরা এ কর্মসূচিতে অংশ নেয়।

খুলনা-যশোর
পাটকল শ্রমিকলীগের ডাকে শ্রমিকরা নিজ নিজ কর্মস্থলে না গিয়ে মঙ্গলবার ভোরে স্ব স্ব মিল গেটে সমবেত হয়। পরে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে নতুন রাস্তা মোড়, আটরা ও রাজঘাটের খুলনা-যশোর মহাসড়কে অবস্থান নেয় এবং পাওনার দাবিতে শ্রমিকরা মহাসড়ক ও রেললাইনের উপর টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে।

এ সময় আন্দোলনকারীরা মহাসড়কের সকল যান ও রেললাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দুপুর ১২টা পর্যন্ত রাজপথ রেলপথ অবরোধ কর্মসূচি শুরু করে। ফলে নতুন রাস্তা, আটরা ও নওয়াপাড়া শিল্প এলাকার প্রায় এক কিলোমিটার সড়ক জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। চরম দুর্ভোগে পড়ে যাত্রীরা।

এই কর্মসূচি চলাকালে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশে পাটকল শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সরদার মোতাহার উদ্দীন, শ্রমিক নেতা মুরাদ হোসেন, সোহরাব হোসেন ও দ্বীন ইসলাম ও খলিলুর রহমান বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশে পাটখাতে প্রয়োজনীয় অর্থবরাদ্দ, বকেয়া মজুরী-বেতন পরিশোধ, জাতীয় মজুরী ও উৎপাদনশীলতা কমিশনের রোয়েদাদ, ২০১৫ কার্যকর, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ ও গ্র্যাচুইটির অর্থ পরিশোধসহ ৯ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে গত শুক্রবার ৭২ ঘণ্টা মিল ধর্মঘট, রাজপথ-রেলপথ অবরোধসহ ৪ দিনের কর্মসূচির ডাক দেয় পাটকল শ্রমিকলীগ।

সিরাজগঞ্জ
সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরি কাঠামোর ব্যবস্থা করা, বকেয়া মজুরি প্রদান, অস্থায়ী শ্রমিকদের স্থায়ীকরণসহ ৯ দফা দাবিতে ৭২ ঘন্টার ধর্মঘট পালন করছে সিরাজগঞ্জে জাতীয় জুট মিলের শ্রমিকরা। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সকাল থেকে সিরাজগঞ্জ জাতীয় জুট মিলে কর্মরত সকল শ্রমিকরা একত্রিত হয়ে এই ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করছে। ধর্মঘটের কারণে মিলের সকল প্রকার উৎপাদন বন্ধ রয়েছে।

নরসিংদী
মজুরী কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবি আদায়ে বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিকলীগের ডাকে নরসিংদীর ইউএমসি জুটমিলস ও ঘোড়াশালের বাংলাদেশ জুটমিলস-এ টানা ৭২ ঘণ্টার শ্রমিক ধর্মঘট চলছে। মঙ্গলবার  সকাল ৬টা থেকে শুরু হয়ে আগামী ৩ দিন এই ধর্মঘট চলবে বলে জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

ধর্মঘটের প্রথম দিনে উত্তেজিত শ্রমিকরা বিভিন্ন স্লোগানে মিল গেটের সামনে অবস্থান ও বিক্ষোভ মিছিল বের করে।

ইউএমসি জুট মিলস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সফিকুল ইসলাম মোল্লা জানান, ইতিপূর্বে বহুবার মাসব্যাপী নানা কর্মসূচির মাধ্যমে সরকারকে দ্রুত শ্রমিকদের মজুরী কমিশনসহ ৯ দফা দাবি মেনে নেয়ার আহ্বান জানানো হলেও ‘অজ্ঞাত কারণে’ শ্রমিকদের ন্যায্য দাইব মেনে নেয়া হয়নি। তাই বাধ্য হয়েই তারা দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘট পালন করছেন।

অচিরেই শ্রমিকদের এসব দাবি মেনে নেয়া না হলে আগামীতে আরো কঠোর কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

রাজশাহী
বকেয়া বেতন ভাতাসহ একই ৯ দফা দাবিতে ধর্মঘট পালন করছে রাজশাহী জুট মিলসের শ্রমিকরা। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে কাটাখালি জুট মিল থেকে শ্রমিকরা মিছিল নিয়ে এসে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে। এ সময় সড়কে যান চালাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ১ ঘন্টা ধরে শ্রমিকরা কাটাখালি জুট মিলের সামনে মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।

শ্রমিক নেতারা জানান, দীর্ঘদিন কাজ করার পর অবসরে গিয়ে শ্রমিকরা তাদের পেনশন ভাতা পাচ্ছেন না।আজকের মধ্যে তাদের দাবি-দাওয়া পূরণ না হলে আগামীকাল আবারও সড়ক অবরোধসহ শান্তিপূর্ণ আন্দোলন দালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন শ্রমিক নেতারা।

খুলনাখুলনা-শ্রমিক ধর্মঘটখুলনার পাটকলপাটকলরাষ্ট্রায়ত্ত্ব পাটকল