যে ভাষা রক্ষা করতে ৫০০ বছরের যুদ্ধ

৫০০ বছর আগে ড্যানিশরা ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জের জনগণকে ড্যানিশ ভাষা চাপিয়ে দিয়েছিল। গীর্জা, স্কুল এবং আদালতে ফ্যারোইজ ভাষা নিষিদ্ধ ছিল। ফ্যারোইজরা নিজেদের মধ্যে ফ্যারোইজ ভাষা ব্যবহার করতে থাকে সেই সময় থেকেই। ৫০০ বছর আগে থেকেই ভাষা নিয়ে এক ধরণের আন্দোলন তৈরি হয়। ১৭ প্রজন্ম ধরে কিকজু গ্রামে বসবাস করা একটি পরিবারের সদস্য জোয়ানস প্যাটারসন বলছেন। দীর্ঘ সময় ধরেই এই ভাষা বেঁচে আছে। একটি ঐতিহ্যবাহী নাচও রয়েছে ফ্যারোইজদের। নাচটিও তারা নিজেদের ভাষার মতোই যত্নে রেখেছে। ‘চেইন নাচ’ফ্যারোইজদেরই গল্প, সুর এবং ভাষা ব্যবহার করা হয়েছে যা ৫০০ বছর ধরেই চলছে । এই নাচের মাধ্যমে প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম জানছে ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জের ইতিহাস ও সংস্কৃতি। ফ্যারোইজদের অতীতের ভাষা সংরক্ষণ করতে নতুন করে শব্দ যুক্ত করা হয়েছে একটি অভিধানে। ২০০ বছরের পুরনো শব্দও সেখানে যুক্ত হয়েছে। কাজটি পরিশ্রম করে সফল করেছেন জোহান হেন্ড্রিক। হেন্ড্রিক বলছেন প্রতিটি নৌকার নিজস্ব নাম রয়েছে এবং প্রতিটিই ভিন্ন একটি ফ্যারোইজ শব্দ। এভাবে ড্যানিশ, ইংরেজি এসব শব্দগুলো থেকে বিচ্ছিন্ন হতে চেয়েছে ফ্যারোইজরা। যদিও ফ্যারো দ্বীপপুঞ্জের আনুষ্ঠানিক ভাষা ড্যানিশ, কিন্তু ফ্যারোইজ ভাষাকেই তারা মনে-প্রাণে ধারণ করে।

বিজ্ঞাপন

চ্যানেল অাই অনলাইনচ্যানেল আইফ্যারো দ্বীপপুঞ্জলিড মাল্টিমিডিয়া