‘ভাইজান’-এ দুই শাকিবের রহস্য উন্মোচন, তবে মুক্তি নিয়ে সংশয়

দুর্দান্ত সংলাপ, অসাধারণ অভিনয়ের আভাস, দর্শক ধরে রাখার মতো চমকপ্রদ গল্প আর শরীর মন মাতানো গান নিয়েই আসছে ফুল এন্টারটেইনিং চলচ্চিত্র ‘ভাইজান এলো রে’। শনিবার বিকাল সাড়ে পাঁচটায় এসকে মুভিজের ইউটিউব চ্যানেলে ছবির ট্রেলার অবমুক্তির পর এমন আভাসই পাওয়া গেল।

মাত্র ২ মিনিট ১৯ সেকেন্ডের চমকপ্রদ ট্রেলার উন্মোচনের সাথে সাথেই সাড়া পড়ে মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘ভাইজান এলো রে’ নিয়ে। আসছে ঈদে মুক্তির লক্ষ্যে যদিও এই প্রচার প্রচারণা, তবু এখনো বাংলাদেশে ছবিটির মুক্তি নিয়ে আছে সংশয়। কেনো না এরইমধ্যে শোনা যাচ্ছে, দেশিয় উৎসবে ভিনদেশি কোনো চলচ্চিত্র মুক্তি দেয়া হবে না। এমনটা নাকি আইনগত সিদ্ধান্তই।

তবে ‘ভাইজান এলো রে’র মুক্তি নিয়ে আপাতত ভাবনা নেই সিনেপ্রেমীদের। ছবির ট্রেলার অবমুক্তির পর পরই সবাই দেশের তারকা অভিনেতা শাকিব খানের অভিনয়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। বিশেষ করে ছবির গল্প ও সংলাপ নিয়ে অনেকেই বেশ উচ্ছ্বসিত। ট্রেলারে উন্মোচিত হয়েছে ছবিতে দুই শাকিবের থাকার বিষয়টিও। এতোদিন শুধু শোনা যাচ্ছিলো, ছবিতে দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করছেন শাকিব। আর এবার ট্রেলারে তা উন্মোচনও হলো।

ট্রেলারে শাকিব ছাড়াও ছবির দুই নায়িকা শ্রাবন্তী ও পায়েলকেও দেখ গেছে আলাদা স্টাইলে। দুই শাকিবের দুই নায়িকা রূপে। রোমান্স, কমেডি, পারিবারিক আবহ, উৎসবের আমেজ, টানাপড়েন সবকিছুই যেনো ঠিক ঠাক ফুটিয়ে তুলেছেন নির্মাতা।

‘ভাইজান এলো রে’ পুরোপুরি কলকাতার ছবি। ছবিটি পরিচালনা করেছেন শিকারি, নবাব, চালবাজ ছবিগুলোর পরিচালক জয়দীপ মুখার্জী। প্রযোজনা করেছে কলকাতার এসকে মুভিজ। শাকিব খান, শ্রাবন্তী ও পায়েল সরকার ছাড়াও ছবিতে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের মনিরা মিঠু, দীপা খন্দকার, শাহেদ আলী এবং কলকাতার রজতাভ দত্ত, বিশ্বনাথ বসু, শান্তিলাল মুখার্জি, সাগ্নিক, সুপ্রিয় দত্ত প্রমুখ।

গেল মার্চে কলকাতায় এই ছবির শুটিং শুরু হয়। এরপর টানা শুটিংয়ে লন্ডনে ‘ভাইজান’-এর শুটিং শেষ হয়।

ট্রেলারে ‘ভাইজান এলো রে’:

বিজ্ঞাপন

এসকে মুভিজপায়েলভাইজান এলো রেলিড বিনোদনশাকিব খানশ্রাবন্তী