ফিলিস্তিন ইস্যুতে বিএনপি নীরব কেন, প্রশ্ন হাছানের

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বিএনপি নেতৃত্বের প্রতি প্রশ্ন রেখে বলেছেন: নির্বাচন এলেই আপনারা ইসলামের কথা বলে ভোট চাওয়া শুরু করেন। কিন্তু ফিলিস্তিনে যখন মুসলমানদের পাখির মতো গুলি করে হত্যা করা হচ্ছে, তখন আপনারা চুপ কেন?

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ অাওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের অায়োজিত-ফিলিস্তিনে নির্বিচারে মানুষ হত্যার প্রতিবাদে মানবববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

হাছান বলেন: গত সপ্তাহ থেকে ফিলিস্তিনের সাধারণ জনগণের ওপর ইসরায়েল নির্যাতন শুরু করেছে। পাখির মতো সাধারণ মানুষকে গুলি করে মারা হচ্ছে। মুসলমানদের মারা হয়েছে। নারী, পুরুষ, শিশু ও পঙ্গুদেরকেও হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ড মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হচ্ছে। পৃথিবী চেয়ে চেয়ে দেখতে পারে না। অামাদের নেত্রী শেখ হাসিনা তার প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে তিনি অারো বলেন, যারা নির্বাচন অাসলে ইসলামের নাম করে ভোট প্রার্থনা করে। মানুষের কাছে গিয়ে ভোট চায় তাদের মুখে এ হত্যাকাণ্ডের কোনো প্রতিবাদ নাই। বিএনপি অফিসে সকাল বিকাল প্রেস বিফ্রিং ও মানববন্ধন করা হয়। শুধু মাত্র খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য। অাজকে ফিলিস্তিনে পাখির মতো মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে ,এ নিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের মুখ থেকে একটি শব্দও বের হয়নি।

তিনি অারো বলেন, অামরা তার প্রতিবাদ জানাই। শুধুমাত্র বিএনপি প্রতিবাদ জানায় নাই। বিএনপি ইসলামের কথা বলে ভোট চাইবে। এরা অাসলে ইসলাম নিয়ে ব্যবসা করে। মুসলমানের উপর অন্যায় ও অত্যাচার হয় সেটি নিয়ে কোনো কথা বলে না।

বিএনপির নেতাকর্মীদের পরামর্শ দিয়ে অাওয়ামী লীগের এ নেতা বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়ার মধ্যে বিএনপিকে অাটকিয়ে রাখবেন না। তাদের মধ্যে অাটকিয়ে রাখলে বিএনপিকে টিকিয়ে রাখা যাবে না।

মির্জা ফখরুল ইসলাম ও রিজভী বক্তব্যের প্রেক্ষিতে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের যে কথা বলেছে তার সাথে একাত্বতা রেখে তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নির্বাচনের মধ্যে কোনো সর্ম্পক নাই। খালেদা জিয়া কোনো রাজনৈতিক ব্যক্তি নয়, তিনি হচ্ছেন দুর্নীতির দায়ে সাজাপ্রাপ্ত অাসামী। শাস্তিপ্রাপ্ত অাসামীর সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সর্ম্পক নাই। এরশাদও জেলে ছিলেন। তখনও নির্বাচন তার জন্য বসে ছিল না। খালেদা জিয়া জেলে অাছে তার জন্য নির্বাচন বসে থাকবে না।

তিনি অারো বলেন, বিএনপি গত নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে গণতন্ত্রের যাত্রা ব্যাহত করেছেন। ষড়যন্ত্র করে কোনো লাভ হবে না। এটি ২০১৪ সাল নয়, এটি ২০১৮ সাল। ২০১৪ সালের তুলনায় শেখ হাসিনার হাত অারো বেশি শক্তিশালী। বিশেষ করে দেশে ও বিদেশে। শেখ হাসিনা এখন বাংলাদেশের নেত্রী নয়, তিনি এখন বিশ্বের নেত্রী।

আওয়ামী লীগড. হাছান মাহমুদফিলিস্তিন