নিখোঁজ আওয়ামী লীগ নেতার মরদেহ উদ্ধার

মাগুরার শ্রীপুরে পুলিশি গ্রেপ্তার এড়াতে মঙ্গলবার বিকেলে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ আওয়ামী লীগ নেতা আমিরুল মোল্লার মরদেহ উদ্ধার হয়েছে।

খুলনা থেকে আসা ডুবুরিরা বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কুমার নদী থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে। আমিরুল মোল্লা শ্রীপুর উপজেলার শ্রীকোল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ২নং ওয়ার্ডের সভাপতি।

আমিরুলের ভাই বাহারুল মোল্লা জানান: মঙ্গলবার বিকেলে আমিরুল শ্রীকোল বাজারে চায়ের দোকানে বসেছিলেন। এ সময় গ্রাম্য প্রতিপক্ষ বাহারুল মেম্বার পুলিশ নিয়ে আসে তার ভাইকে গ্রেপ্তার করাতে। এস আই ওলিয়ার রহমানের নেতৃত্বে আসা ডিবি পুলিশের একটি টিম এসেই চায়ের দোকানে বসা আমিরুলকে ধাওয়া দেয়। এ সময় আমিরুল গ্রেপ্তার এড়াতে দৌড়ে কুমার নদীতে ঝাঁপ দেয়।

মাঝ নদীতে গিয়ে আমিরুল হাত উঁচু করে বাঁচাও-বাঁচাও বলে চিৎকার করতে থাকে। এ সময় ওলিয়ার দারোগা নৌকা নিয়ে মাঝ নদীতে গিয়ে লগি দিয়ে আঘাত করতে থাকায় সে নদীর তলদেশে হারিয়ে যায়।

পরে উপস্থিত লোকজন ও দমকল কর্মীরা নদীতে নেমে দীর্ঘ সময় খোঁজাখুঁজি করলেও তাকে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়।

বুধবার খুলনা থেকে ডুবুরি দল এসে সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করে। অমিরুলের ভাই বাহারুল মোল্লার দাবি তার ভাই র্নিদোষ। গ্রাম্য দলাদলি ও সামাজিক বিরোধ নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় প্রতিপক্ষ বাহারুল মেম্বার ষড়যন্ত্র করে তার ভাইয়ের নামে শ্রীপুর থানায় মামলা করেছিলো।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান: আমিরুলের বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় সংর্ঘষ ও পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় একাধিক মামলা রয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম জানান: বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। অভিযুক্ত এসআই ওলিয়ারকে সাময়িক বরখাস্ত তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

আওয়ামী লীগনেতাপুলিশি গ্রেপ্তারমরদেহ উদ্ধারমাগুরা