নরসিংদীতে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১ জন নিহত

নরসিংদী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তালিকাভূক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী মিঠুন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় তার চার সহযোগীকে পিস্তল ও গুলিসহ গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। 

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার ভোরে মাধবদী শহরের টাটাপাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আওলাদ হোসেন মিঠুন (৩৫) মাধবদী থানার জাকির হোসেনের ছেলে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আবদুল গাফফার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, পুলিশের তালিকাভূক্ত চিহ্নিত মাদক ও অস্ত্র ব্যবসায়ী মিঠুনকে তার সহযোগী সোহেলসহ শুক্রবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের কাঞ্চন এলাকা থেকে আটক করা হয়।

গতরাতে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মাধবদীর টাটাপাড়ায় অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে নামে পুলিশ। এসময় আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা মিঠুনের অন্যান্য সহযোগীরা তাকে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য ডিবি পুলিশের উপর অতর্কিত হামলা চালায়।

এ সময় পুলিশ পাল্টা গুলি ছুড়লে বেশ কয়েকজন পালিয়ে যায়। এতে ডিবি পুলিশের দুই সদস্যসহ আহত হয় সন্ত্রাসী মিঠুন। আহত মিঠুনকে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসময় হৃদয় (২২), মাইনুল (২৪), মেহেদি হাসান (২৫) কে ২ টি বিদেশী পিস্তল, ১ টি পাইপগান ও ৮ রাউন্ড গুলিসহ গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় গোয়েন্দা পুলিশ। নিহত মিঠুনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় হত্যা, অস্ত্র, বিস্ফোরক ও মাদকের ডজন খানেক মামলা রয়েছে।

নারায়ণগঞ্জবন্দুকযুদ্ধবিদেশী পিস্তল