নরসিংদীতে আবারও উত্তপ্ত টেটাযুদ্ধের চরাঞ্চল

টেটাযুদ্ধে আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার চরাঞ্চলগুলো। যেকোন সময় ঘটতে পারে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। শুক্রবার রায়পুরার বাঁশগাড়ী ও নীলক্ষ্যাতে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে এ পর্যন্ত নিহত হয়েছে ৩ জন। আহত হয়েছে অন্তত অর্ধশত।

এ ঘটনায় ৯টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ১৩জনকে আটক করেছে পুলিশ।

নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার দুর্গম চরাঞ্চল নীলক্ষ্যা, বাঁশগাড়ী, মির্জারচর, চরমধুয়া, শ্রীনগর, পাড়াতলী, চাঁনপুরে আধিপত্যের দ্বন্দ্ব দীর্ঘ দিনের। মাঝে মাঝেই সংঘাত ছড়িয়ে পড়ে। শুক্রবার আধিপত্যের দন্দ্বে বাঁশগাড়ীর সংঘাতে প্রতিপক্ষের গুলিতে এক স্কুল ছাত্র নিহত হয়, আহত হয় আরো ১০জন।

অপরদিকে নীলক্ষ্যা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম এর অনুসারী ছমেদ আলীর আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষে ২ জন মারা যায়।

ঘটনায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জানান, সংঘর্ষে লিপ্ত দু’পক্ষই আওয়ামী লীগের হলেও দায়ভার আওয়ামী লীগ নেবে না।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি জানান, হামলার ঘটনাটির তদন্ত চলছে। নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবন যাপন নিশ্চিতে আধিপত্যের দ্বন্দ্ব থামাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।

চরাঞ্চলটেটাযুদ্ধনরসিংদীসেমি লিড