দুর্যোগ মোকাবিলায়ও বাংলাদেশের সুনাম অর্জন: প্রধানমন্ত্রী

শুধু উন্নয়ন না, দুর্যোগ মোকাবিলায়ও বাংলাদেশ আন্তর্জাতিকভাবে সুনাম অর্জন করেছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে দেশের ১৪ জেলায় ১০০টি বহুমুখি আশ্রয় কেন্দ্র এবং ১১ হাজার ৬০৪টি দুর্যোগ সহনীয় ঘর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন: বন্যা, খরা, ঘূর্ণিঝড়, ভূমিকম্প, অগ্নিনির্বাপণে যেন ক্ষয়ক্ষতি হ্রাস পায়, সেজন্য যা যা ব্যবস্থা নেয়ার ইতোমধ্যে তা আমরা নিয়েছি, যা আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হয়েছে এবং সবাই এখন মনে করে বাংলাদেশ থেকে এটাও শেখার আছে। অনেকে আমাদের কাছে জানতেও চায়।

‘‘এ বছরের জুলাই মাসে ঢাকায় ‘গ্লোবাল কমিশন অ্যান্ড অ্যাডাপটেশন’র সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব বান কি মুন দুর্যোগ প্রতিরোধে বাংলাদেশের সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ বিশ্ব অভিযোজন কেন্দ্র, ঢাকা অফিস স্থাপনের ঘোষণা দেন।

অর্থাৎ বিশ্বে এখন আমরা শুধু উন্নয়নের রোল মডেল না, প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায়ও রোল মডেল হিসেবে বাংলাদেশ সম্মান পেয়েছে,’’ বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন: বাংলাদেশ ইতোমধ্যে ‘দুর্যোগ-ঝুঁকি হ্রাসকরণ’ সম্পর্কিত জাতিসংঘের অফিস থেকে প্রণীত এ বছরের প্রতিপাদ্য ‘বিল্ড টু লাস্ট’র আলোকে ‘নিয়ম মেনে অবকাঠামো গড়ি, জীবন ও সম্পদের ঝুঁকি হ্রাস করি’ প্রকল্প নিয়ে কাজ করছে।

‘এটি আমাদের সামগ্রিক লক্ষ্য ও কৌশলের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ বলে আমরা মনে করি। আমরা যা কিছু তৈরি করব, আমাদের মাথায় রাখতে হবে বাংলাদেশ একটি দুর্যোগপ্রবণ দেশ। কাজেই সেই দুর্যোগে মানুষের ক্ষতি যেন না হয়, সেদিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি রাখতে হবে,’ বলেন তিনি।

এক্ষেত্রে স্বেচ্ছাসেবকদের সাধুবাদ জানিয়ে তিনি বলেন: যারাই ভলান্টারি সার্ভিস দেন তারা সবাই আন্তরিকভাবে, একেবারে নিবেদিতপ্রাণ হিসেবে কাজ করেন।

আশ্রয় কেন্দ্রদুর্যোগ ব্যবস্থাপনাপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাপ্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা