তামিমের সঙ্গী বাছাই ‘খুব কঠিন সিদ্ধান্ত’

সৌম্য, ইমরুল না লিটন, মধুর সমস্যায় টিম ম্যানেজমেন্ট

‘খুব কঠিন একটা সিদ্ধান্ত হবে। বাংলাদেশের ক্রিকেটে গভীরতার জন্য মরিয়া ছিলাম আমরা। সেটার খানিকটা নমুনা দেখতে পাচ্ছি। কী অসাধারণ একটা পরিস্থিতি।’

কথাগুলো বাংলাদেশ দলের হেড কোচ স্টিভ রোডসের। তামিম ফিট হয়ে ফেরায় ওপেনিংয়ে দুই পজিশনের জন্য এখন চার দাবিদার। কোচের কথায় উঠে আসল সুস্থ সেই প্রতিযোগিতার স্বস্তিই।

গত এশিয়া কাপে তামিম ইকবালের চোটের পর কাকে ওপেনিংয়ে পাঠানো হবে তা নিয়ে যখন জটিলতা, কিছুদিন পেরিয়ে সেটিই এখন মধুর সমস্যার কারণ টিম ম্যানেজমেন্টের জন্য। দারুণ ফর্মে আছেন সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস ও লিটন দাস। তামিম তো ফিট হয়ে ফিরেই ব্যাটে তুলেছেন ঝড়।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ মাঠে গড়াবে রোববার। তার আগে বাংলাদেশের স্কোয়াডে থাকা চার ওপেনারই আছেন দুর্দান্ত ফর্মে। ২ মাস ২০দিন পর খেলতে নেমে বৃহস্পতিবার বিসিবি একাদশের হয়ে ৮৩ বলে ১০৭ রানের ইনিংস খেলে প্রত্যাবর্তন রাঙিয়েছেন তামিম।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের সবশেষ ওয়ানডে ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানো সৌম্য সরকারও উইন্ডিজের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে খেলেছেন ১০৩ রানের ঝলমলে অপরাজিত ইনিংস।

স্কোয়াডের আরেক ওপেনার ইমরুল কায়েস সবশেষ সিরিজে তিন ম্যাচে করেছেন ৩৪৯ রান, ছিল দুটি সেঞ্চুরি। একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ইমরুলের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নেমে ৮৩ রানের ইনিংস খেলেছেন লিটন। তার এক ম্যাচ আগেই এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে লিটন খেলেছিলেন ১২১ রানের ক্যারিয়ারসেরা ইনিংস।

টপঅর্ডারের সবার ফর্ম ও তাদের মধ্যে প্রতিযোগিতা দেখে একদিন আগেই খুশির কথা জানিয়েছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। বিকেএসপিতে বিসিবি একাদশ ও উইন্ডিজের মধ্যকার প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে ওপেনিং নিয়ে কথা বলেন তিনি।

‘এটি(ওপেনারদের মাঝে প্রতিযোগিতা) দলের জন্য অনেক ভালো একটি সাইন। ব্যাকআপ ক্রিকেটাররাও যথেষ্ট ভালো অবস্থানে আছে। প্রতিযোগিতার মধ্যে থাকলে দল সবসময় ভালো অবস্থানে থাকে। আমি মনে করি একটি প্রতিযোগিতা থাকা ভালো। আর যখন যাকে দরকার হবে তখনই তাকে খেলানো হবে।’

তামিমের সাথে কে ওপেন করবেন সেটি নিয়ে সিদ্ধান্ত হয়ত ম্যাচের সকালেই জানা যাবে। তবে উদ্বোধনী ঘিরে সুস্থ এই প্রতিযোগিতা যে স্বস্তির সেটি প্রধান নির্বাচকের কথাতে স্পষ্ট। কোচের কথাতেও তাই স্বস্তির প্রতিধ্বনি। ওপেনিংয়ের পাশাপাশি প্রস্তুতি ও দল নিয়েও দারুণ স্বস্তিতে রোডস।

‘কয়েকজনের জন্য প্রস্তুতি খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। চোট কাটিয়ে ফেরার পর তামিমের জন্য জরুরি ছিল। আমাদের ওয়ানডে দলে ও খুবই গুরুত্বপূর্ণ অংশ, সৌম্যও তাই।’

রোববার তামিমের সঙ্গী হিসেবে সৌম্যর এগিয়ে থাকার ইঙ্গিতই কি মিলল কোচের শেষ বাক্যটায়?

ইমরুলতামিমবাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডেলিটনলিড স্পোর্টসসৌম্য