জয়ের সুবাস পাচ্ছে বাংলাদেশ

নাগালে থাকা লক্ষ্যে তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার ভিত দিলেন ৫৪ রানের জুটি গড়ে। তামিমের উইকেট হারিয়ে শতরানের পথ পাড়ি দিয়ে আউট হলেন সাকিব আল হাসান। তার দেখানো পথে হাঁটলেন সৌম্য। শতরান পেরিয়ে উইন্ডিজ অফস্পিনার অ্যাসলে নার্সের জোড়া আঘাতে বাংলাদেশ হঠাৎ ছন্দ হারালেও মুশফিকুর রহিম ও মোহাম্মদ মিঠুনের প্রতিরোধে পাওয়া যাচ্ছে জয়ের সুবাস।

বিজ্ঞাপন

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৮ উইকেটে উড়িয়ে দেয়া বাংলাদেশ দ্বিতীয় দেখাতেও ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলা দলটিকে হারানোর উজ্জ্বল সম্ভাবনা জাগিয়েছে। ২৪৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নামা টাইগারদের সংগ্রহ ৩২ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৬২ রান।

এক ম্যাচ হাতে রেখেই ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল নিশ্চিতের হাতছানি নিয়ে ২৪৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিং নামা বাংলাদেশ শতরান পাড়ি দেয় মাত্র এক উইকেট হারিয়ে। তবে ইনিংসের ২১তম ওভারে নার্সের জোড়া আঘাতে হঠাৎ ছন্দপতন ঘটে।

৩৫ বলে ২৯ রান করে কাভারে রস্টন চেজের হাতে সহজ ক্যাচ তুলে দেন সাকিব। এক বল পরই শর্ট লেগে আমব্রিসের হাতে ক্যাচ দেন সৌম্য। আউট হওয়ার আগে তুলে নেন নিজের নবম ফিফটি। ৬৭ বলে ৫৪ রানের ইনিংসে ছিল ৪টি চার ও দুটি ছয়ের মার।

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারের ওপেনিং জুটিই সহজ জয়ের পথ দেখায়। ক্লনটার্ফ থেকে ভেন্যু বদলে ম্যালাহাইডে এলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় দেখাতেও মেলে ভাল শুরু।

ছোট লক্ষ্যে দুই বাঁহাতি মিলে যোগ করেন ৫৪ রান। ইনিংসের নবম ওভারে নার্সের বলে বোল্ড হন তামিম। টাইগার ওপেনার ২৩ বল খেলে করেন ২১। তার ইনিংসে ছিল চারটি বাউন্ডারি।

ডাবলিনে রৌদ্রজ্জ্বল সকালে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে মাশরাফী-মোস্তাফিজদের দাপটের সামনে লম্বা হয়নি ক্যারিবীয়দের ইনিংস। ৫০ ওভার খেলে ৯ উইকেট হারিয়ে তোলে ২৪৭ রান। শাই হোপ ৮৭ ও জেসন হোল্ডার করেন ৬২ রান। মোস্তাফিজ চারটি ও মাশরাফী নেন তিন উইকেট।

ত্রিদেশীয় সিরিজবাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজলিড স্পোর্টস