চাঁপাইনবাবগঞ্জে পাট বীজ আবাদে সাফল্য

বিএডিসির সহায়তায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা ও শিবগঞ্জ উপজেলার আট ইউনিয়নের এবার ১ হাজার ২শ ৭৮ একর জমিতে পাট বীজের আবাদ হয়েছে। এর মধ্যে ৯৮ জাতের পাট বীজ উৎপাদন হয়েছে ১ হাজার ১শ ১১ একর জমিতে এবং ৭২ জাতের বীজ উৎপাদন হয়েছে  ১৬৭ একর জমিতে। বিঘা প্রতি ১০০-১২০ কেজি বীজ আশা করছেন কৃষকরা।

বিজ্ঞাপন

কৃষকরা বলেন, এবার পাট ভালোই হয়েছে। আশা করি এবার বেশি হবে। তবে সরকার যদি একটু সাহায্য সহযোগিতা করে তাহলে ফলন আরো বৃদ্ধি পেতে পারে।

পাট বীজ আবাদে চাষীর বিঘা প্রতি খরচ ৫-৮ হাজার টাকা। এবছর বীজের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে মণ প্রতি ৫ হাজার টাকা। সে হিসেবে বিঘা প্রতি ৮-১০ হাজার টাকা লাভের আশা করছেন চাষী।

বিএডিসির হিসেবে পাট বীজ উৎপাদনে এগিয়ে আছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা। বিএডিসির রাজশাহী বিভাগের উপ-পরিচালক আবদুস সামাদ খান বলেন, পাট বীজের উৎপাদন আরো বাড়ানো জন্য কৃষকদের কিছু আর্থিক সমস্যা আছে। এই ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে আমরা উচ্চতর কর্তৃপক্ষকে আমরা জানাবো। যাতে করে তারা আরো বেশি হারে পাট বীজ চাষে আগ্রহী হয়।

দেশে পাট বীজের চাহিদা মেটাতে প্রণোদনা সহ উপকরণ সহায়তার দাবি জানিয়েছেন পাট বীজ চাষীরা।

চাপাইনবাবগঞ্জপাট বীজ