গঙ্গা-যমুনা নাট্য উৎসবে ‘কাল রাত্রি’

১ অক্টোবর থেকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হয়েছে গঙ্গা-যমুনা নাট্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব। কারেনার কারণে দীর্ঘদিন পর এই উৎসবের আয়োজন হওয়ায় দর্শক ও শিল্পীদের মধ্যে চলছে আনন্দ-উচ্ছ্বাস। শিল্পকলার তিনটি হলেই প্রতিদিনই থাকছে নাটক।

তারই ধারাবাহিকতায় আগামী ১১ অক্টোবর সন্ধ্যা ৭টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মূল হলে মঞ্চস্থ হবে পদাতিক নাট্য সংসদের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক প্রযোজনা ‘কাল রাত্রি’।

লামিসা শিরীন হোসাইনের ‘লোন সারভাইভার’ গল্প অবলম্বনে নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছে তানভীর আহমেদ সিডনী। নির্দেশনা দিয়েছেন ওয়াহিদুল ইসলাম।

নাটকের কাহিনি প্রসঙ্গে নির্দেশক জানিয়েছেন, রক্তস্নাত লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ নামের রাষ্ট্রের অভ্যুদয় ঘটে। ১৯৭১ সালে এই লড়াইয়ে বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ সব স্বার্থ ভুলে এক কাতারে এসে দাঁড়ায়। মুক্তিযুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবদান ছিল উল্লেখ করার মতো। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল ও আশপাশের এলাকাকে অবলম্বন করে রচিত হয়েছে লামিসা শিরীন হোসাইনের গল্প। এ গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে নাটক ‘কালরাত্রি’।

নাটকটির বিভিন্ন চরিত্র রূপায়ন করছেন শাখাওয়াত হোসেন শিমুল, মো. ইমরান খান, ইকরামুল ইসলাম, চমক তারা, সালমান শুভ চৌধুরী, জিনিয়া আজাদ, ফরহাদ সুমন, শরীফুল ইসলাম, মশিউর রহমান, কাজী সোহেল, জয়, জিতু, প্রান্ত, মিরা, নাসের, সৈয়দা শামছি আরা সায়কা প্রমুখ।

১২ দিনব্যাপী ‘গঙ্গা-যমুনা সাংস্কৃতিক উৎসব’ এ প্রতিদিন বিকাল ৪টা থেকে উন্মুক্ত মঞ্চ ও নাট্যশালার লবিতে চলছে পথনাটক, মূকাভিনয়, নৃত্যালেখ্য, সংগীত, আবৃত্তি, নৃত্য, ধামাইল গান, গম্ভিরা, বাউল গানসহ নানা সাংস্কৃতিক কার্যক্রম। এবারের উৎসবে অংশ নিচ্ছে সারা দেশের ১৪০টি দলের প্রায় সাড়ে তিন হাজার শিল্পী। করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার অংশ নিতে পারেনি ভারতের কোনো দল।

উৎসববাংলাদেশ শিল্পকলালিড বিনোদনশিল্পকলাসংস্কৃতিসিনেমা