কৃষিতে ভর্তুকিকে বিনিয়োগ বললেন কৃষিমন্ত্রী

কৃষিতে ভর্তুকি নয় বরং বিনিয়োগ করা হয় বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।

আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সাথে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশে সারের কোনো ঘাটতি নেই। সারের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে। এছাড়া জুন পর্যন্ত ৩০ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা দিতে হবে বলেও জানান তিনি।

সারাদেশে বোরো উৎপাদন হয় দুই কোটি মেট্রিক টন। শুধু হাওর অঞ্চলে ১২ লাখ মেট্রিক টন বোরো ধান উৎপাদন হয়। তাই সরকার হাওরের ক্ষতিগ্রস্ত চাষীদের পাশে দাঁড়াবেন বলে জানান তিনি।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, পাশের দেশ ভারতসহ পৃথিবীর বড় বড় দেশগুলোতে সারের দাম অনেক বেশি। সারে এভাবে প্রণোদনা দেয়াটা বিশ্ব অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় একটি বিরল উদাহরণ বলেও উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বিশ্বব্যাংক, আইএমএফসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা অভিযোগ করে বলেছে, বাংলাদেশ কৃষিতে এতো ভর্তুকি দেয় বলে দেশের উন্নয়ন হয় না, রাস্তাঘাট-ব্রিজ হয় না। কিন্তু বাংলাদেশ সরকার কৃষিতে ভর্তুকি দেয় না বরং কৃষি খাতে প্রণোদনা দেয়ার কারণে উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে, দেশ খাদ্যশস্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে।’

আগামীতেও এই প্রণোদনা প্রদান অব্যাহত থাকবে বলে জানান আব্দুর রাজ্জাক।

সার নিয়ে কোনো সিন্ডিকেট তৈরি হলে সরকার কাউকে ছাড় দেবে না বলেও সতর্ক করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

কৃষিকৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাকসার