কাশ্মীরে হামলার সঙ্গে পাকিস্তানের যোগসূত্র নেই: নওয়াজ শরীফ

কাশ্মীর হামলায় পাকিস্তানের কোনো যোগসূত্র নেই বলে দাবি করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে তিনি বলেছেন, ভারতের সঙ্গে শক্তি প্রদর্শন না করে বরং আলোচনায় বসতে চায় পাকিস্তান। তবে আলোচনার জন্য ভারতের শর্তগুলোকে অহেতুক বলেছেন নওয়াজ।

ভারতের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায় পাকিস্তান। কাশ্মীর হামলায় পাকিস্তানের সঙ্গে উত্তপ্ত সম্পর্ককে শীতল করতেই দেশটির প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ এ প্রস্তাব দিয়েছেন। জাতিসংঘের ৭১তম সাধারণ পরিষদ অধিবেশনে নওয়াজ আবারো দাবি করেছেন, কাশ্মীর হামলার দায়ভার পাকিস্তানের নয়।

তবে কাশ্মীর সীমান্তে ভারতীয় বাহিনীর মানবাধিকার লঙ্ঘনের কথা উল্লেখ করে আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপ চেয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। এমনকি হিজবুল মুজাহিদিনের নিহত নেতা বুরহান ওয়ানিকে রাজনৈতিক নেতা বলেও আখ্যা দিয়েছেন তিনি।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, কাশ্মীরের সকল রাজনৈতিক বন্দীদের মুক্তি চায় পাকিস্তান। সেখানে ভারতীয় সেনারা যেভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন করে চলছে, আশা করি সে ব্যাপারে জাতিসংঘ নজর দেবে। পাকিস্তানের পত্রিকা ডন জানিয়েছে, কাশ্মীরে ভারতীয় বাহিনীর কার্যকলাপ নিয়ে নওয়াজ শরীফ জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনের কাছে কিছু তথ্য-প্রমাণও দিয়েছেন।

পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্য ভারতে ঝড় তুলেছে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র এমজে আকবর বলেছেন, নওয়াজ শরীফের বক্তব্যে আলোচনার কোনো আভাস পাওয়া যায় নি।

তিনি বলেন, সন্ত্রাসীদের হাতে বন্দুক দিয়ে কখনোই আলোচনায় বসা সম্ভব নয়। ইসলামাবাদকে সন্ত্রাসবাদের নীতি ত্যাগ করে আলোচনায় আসতে হবে। সংলাপের জন্য দিল্লি সবসময়ই প্রস্তুত।

ভারতের কূটনীতিকরা বলছেন, কাশ্মীরের নেতা বুরহান ওয়ানিকে নওয়াজ শরীফের সমর্থন জানানো দুঃখজনক।

বিজ্ঞাপন

ভারত-পাকিস্তান