করোনার উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুরে গৃহবধূর মৃত্যু

করোনার উপসর্গ নিয়ে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল (সদর) হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফাতেমা (৪০) নামের এক গৃহবধূ মারা গেছেন।

শহরের বিষ্ণুদী মাদ্রাসা রোড এলাকায় তিনি ভাড়া থাকতেন। তার বাড়ি হাজীগঞ্জের পূর্ব রাজারগাঁও গ্রামে। তিনি ১ ছেলে ও ১ মেয়ের জননী ছিলেন। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

বিজ্ঞাপন

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ও করোনা বিষয়ক ফোকালপার্সন ডা. সুজাউদ্দৌলা রুবেল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শুক্রবার রাত ৮টার দিকে করোনার উপসর্গ জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে সদর হাসপাতালে আসেন ওই মহিলা। তখনই তার অবস্থা গুরুতর দেখে হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃতের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে করোনা টেস্টের জন্য। তবে তার মধ্যে করোনার উপসর্গ বিদ্যমান ছিল। করোনার সন্দেহভাজন মৃত হিসেবে তাকে বিশেষ ব্যবস্থায় দাফন করা হবে।

কিন্তু মৃতের মরদেহ শ্বশুড়বাড়ি চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার রাজারগাঁও ইউনিয়নে নিলে দাফনে বাধা দেন সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হাদী ও স্থানীয় ইউপি মেম্বার ইসমাইল হোসেন। এই আচরণে কান্নায় ভেঙে পড়েন পরিবারের সদস্যরা।

পরে শুক্রবার গভীর রাতে পুলিশ প্রশাসন নিজে দায়িত্ব নিয়ে লাশ দাফন করে বলে জানায় স্থানীয় পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসচাঁদপুর