উপাচার্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলে প্রমাণ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বিরুদ্ধে উঠা দুর্নীতি-অনিয়মের অভিযোগ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কোনো উপাচার্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলে তা প্রমাণ করতে হবে। না হলে মিথ্যা অভিযোগকারীদেরও শাস্তি পেতে হবে।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন করেন, সেশন জটমুক্ত শিক্ষার পরিবেশ ধ্বংসের চেষ্টা হচ্ছে। শিক্ষকরা ছাত্রদের ব্যবহার করছেন।

দুর্নীতির অভিযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের পদত্যাগ দাবিতে বেশ কদিন ধরে আন্দোলন করছেন ক্যাম্পাসের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

এছাড়াও পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালসহ আরও কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতি-অনিয়মের অভিযোগে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা।

নাইমুল আবরারের মৃত্যু প্রসঙ্গে
রাজধানীর রেসিডেনসিয়াল মডেল স্কুলের শিক্ষার্থীর নাইমুল আবরারের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রথম আলোর দায়িত্বহীনতা মেনে নেয়া যায় না।

গত শুক্রবার বিকেলে রেসিডেনসিয়াল মডেল স্কুলে কিশোর আলো আয়োজিত ‘লাভেলো কিআনন্দ’ অনুষ্ঠানে অংশ নেয় নাইমুল আবরার। অনুষ্ঠান চলাকালে মঞ্চের পেছনে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে সে গুরুতর আহত হয়। পরে আয়োজকরা তাকে উদ্ধার করে মহাখালীর ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাতে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

ওই ঘটনার পরও অনুষ্ঠান চালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠে আয়োজকদের বিরুদ্ধে। এমনকি আবরারের চিকিৎসায় অবহেলাও অভিযোগ উঠে।

এরপর গতকাল বুধবার আবরারের বাবা প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানসহ অজ্ঞাত কয়েকজনের বিরুদ্ধে অবহলোজনিত হত্যা মামলা করেন।

আবরারজাবি ভিসিনাইমুল আবরারপ্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা