আদালত অবমাননার অভিযোগে বিএনপিপন্থী ৭ আইনজীবীকে তলব

আপিল বিভাগের দুজন বিচারপতি সম্পর্কে সংবাদ সম্মেলনে দেওয়া বক্তব্যের প্রেক্ষাপটে বিএনপিপন্থী সাত আইনজীবীর বিরুদ্ধে আনা আদালত অবমাননার অভিযোগে ব্যাখ্যা দিতে আগামী ১৫ জানুয়ারি তাদের সর্বোচ্চ আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

আদালত অবমাননার অভিযোগে করা আবেদনটি আপিল বিভাগের কার্যতালিকায় এলে বুধবার প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বিভাগ এই আদেশ দেন।

যে সাত আইনজীবীকে ব্যাখ্যা দিতে ডাকা হয়েছে তারা হলেন, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী, ফোরামের মহাসচিব ও বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট ফাহিমা নাসরিন মুন্নি, জাতীয়তবাদী আইনজীবী ফোরাম সুপ্রিম কোর্ট শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল জব্বার ভূঁইয়া ও সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সহ-সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান খান ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সুপ্রিম কোর্ট শাখার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট গাজী কামরুল ইসলাম সজল।

তবে আদালত অবমাননার অভিযোগে স্বেচ্ছায় পক্ষভুক্ত হতে সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী মহসিন রশীদের আবেদন গ্রহণ করেননি সর্বোচ্চ আদালত। আদালতে অবমাননার অভিযোগের আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী নাহিদ সুলতানা যূথী।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে ২৭ আগস্ট একটি সংবাদ সম্মেলন হয়। সেখানে দেওয়া বক্তব্যের কয়েকটি লাইন উদ্ধৃত করে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. নাজমুল হুদা আদালত অবমাননার অভিযোগে আবেদন করেন। সে আবেদনের পর আপিল বিভাগ বিচারপতি এম এ মতিনের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চের দেওয়া আদালত প্রাঙ্গণে মিছিল-মিটিং না করাসংক্রান্ত রায়ের নির্দেশনা কঠোরভাবে অনুসরণ করতে বলেন।

আইনজীবীবিএনপিসুপ্রিম কোর্ট