বাউন্ডারি আইন পরিবর্তন: আইসিসিকে নিশামের ‘টাইটানিক’ খোঁচা

বাউন্ডারি আইনে পরিবর্তন আনার পর আইসিসিকে খোঁচা দিয়েছেন জিমি নিশাম। এখন নিয়ম পরিবর্তনকে ডুবন্ত টাইটানিক জাহাজের সঙ্গে তুলনা করেছেন লর্ডসের ফাইনালে বাউন্ডারি সংখ্যায় ইংল্যান্ডের কাছে শিরোপা হারানো নিউজিল্যান্ড অলরাউন্ডার।

২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের ফাইনালে অনেক নাটকীয় মোড়ের পর বাউন্ডারির সংখ্যা দিয়ে নির্ধারিত হয়েছিল চ্যাম্পিয়ন। যা নিয়ে বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ে। মহা গুরুত্বপূর্ণ এমন ম্যাচে কোনো দল বেশি চার-ছয় মেরেছে, তা দিয়ে বিশ্বজয়ী ঠিক করা যায় না বলে সরব হন অনেকেই। নড়েচড়ে বসে আইসিসিও। এবার বাউন্ডারি কাউন্ট রুলটি বাতিল করেছে তারা। তা দেখেই বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে খোঁচা নিশামের।

আইনে সংশোধনী আনায় নিউজিল্যান্ডের কোনো লাভ হচ্ছে না। কারণ যা হওয়ার বা যা হারানোর সেটা আগেই ঘটে গেছে। ওই ম্যাচে সুপার ওভারে ব্যাট করা নিশাম তাই আইসিসিকে খোঁচা দিয়ে ‍টুইটে লিখেছেন, ‘এরপরের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত: টাইটানিকের জন্য ভালো দুরবিন দেয়া, যাতে আইসবার্গ ভালো করে দেখা যায়।’

সোমবার দুবাইতে আইসিসির বোর্ড সভায় বাউন্ডারিতে ম্যাচ নিষ্পত্তি হওয়ার আইন পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরে সংবাদ বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, ‘আইসিসির যেকোনো ম্যাচে বাউন্ডারি কাউন্ট রুল বদলে আবার সুপার ওভার নিয়ে আসা হল। কোনো ম্যাচ টাই হলে সুপার ওভারে খেলবে দুটি দল। সুপার ওভারেও যদি টাই হয়, তাহলে লিগ ম্যাচে সেটিকে টাই ম্যাচ হিসেবেই ধরে নেয়া হবে। সেমিফাইনাল বা ফাইনাল হলে সেক্ষেত্রে ততক্ষণ পর্যন্ত সুপার ওভার চলবে, যতক্ষণ না এক দল অন্য দলের থেকে এগিয়ে যাচ্ছে।’

গত ওয়ানডে বিশ্বকাপের ফাইনালে টাই হয় ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ। পরে সুপার ওভারে গড়ালে সেখানেও টাই হয় ম্যাচ। তখন ম্যাচে বেশি বাউন্ডারি মারার সুবাদে ইংল্যান্ডকে জয়ী ঘোষণা করা হয়।

আইন পরিবর্তনের পর নিশামের সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন বিশ্বকাপে কিউই দলের ব্যাটিং কোচ ও তাদের সাবেক তারকা ব্যাটসম্যান ক্রেইগ ম্যাকমিলান। টেনে এনেছেন ফাইনালে মার্টিন গাপটিলের থ্রো বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে সীমানা পেরিয়ে গেলে ইংল্যান্ড যে বাড়তি চার রান পেয়েছিল সেই প্রসঙ্গও। বাউন্ডারি আর রানিং বিটুইন দ্য উইকেট মিলিয়ে ইংল্যান্ডকে ওভার থ্রোতে ৬ রান দিয়েছিলেন কুমার ধর্মসেনা। কিন্তু আইসিসির নিয়মানুযায়ী ১ রান কম পাওয়ার কথা ছিল ইংলিশদের। এমন হলে কিউইরা বিশ্বকাপ জিতে যেত সুপার ওভারের আগেই।

আইসিসির দিকে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে ম্যাকমিলান লিখেছেন, ‘অনেক দেরি হয়ে গেল। এবার কি ব্যাটসম্যানের গায়ে বল লাগলে বা দিক পরিবর্তন করলে ডেড বল ঘোষণা করা যায়?’

আইসিসিক্রিকেট বিশ্বকাপ-২০১৯জিমি নিশামবিশ্বকাপ-২০১৯লিড স্পোর্টস