চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

৫-১১ বছর বয়সী শিশুদের জন্য ফাইজারের টিকা কার্যকর বলে দাবি

কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ফাইজার এবং বায়োএনটেকের টিকা ৫-১১ বছর বয়সী শিশুদের জন্য কার্যকর বলে দাবি করা হয়েছে। প্রাথমিক পরীক্ষায় এ টিকা শিশুদের জন্য নিরাপদ বলে টিকা উৎপাদনকারী দুই প্রতিষ্ঠান দাবি করেছে। সে কারণে শিশুদের এ টিকা প্রদানে অল্প সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করবে বলেও প্রতিষ্ঠান দুটি জানিয়েছে।

মার্কিন টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ফাইজার এবং জার্মানিতে তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠান এক যৌথ বিবৃতিতে জানিয়েছে, ৫ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের মধ্যে টিকা প্রয়োগ করে এটি নিরাপদ বলে প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। ওইসব শিশুদের শরীরে যথেষ্ট পরিমাণে এন্টিবডি তৈরি হয়েছে বলেও লক্ষ্য করা গেছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ইউরোপিয় ইউনিয়ন এবং যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠানের কাছে ভ্যাকসিন প্রয়োগের তথ্যাবলী জমা দেয়া হবে বলেও ফাইজার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এত কম বয়সী শিশুদের জন্য ফাইজারই প্রথম পরীক্ষা চালিয়েছে। ৬-১১ বছর বয়সীদের মধ্যে মর্ডানার টিকা প্রয়োগের পরীক্ষা এখনও চলছে।

সর্বনিম্ন ১২ বছর বয়সীদের মধ্যে বিশ্বব্যাপী  ফাইজার এবং মর্ডানার টিকা দেয়া চলছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণে শিশুদের ঝুঁকি কম মনে করা হলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে অতিসংক্রমণশীল ডেল্টা ভেরিয়েন্ট ভয়ঙ্কর হতে পারে।

প্রাথমিক পরীক্ষায় ৫-১১ বছর বয়সী শিশুদের মধ্যে ১০ মাইক্রোগ্রাম টিকার ২টি ডোজ প্রয়োগ করা হয়েছে। প্রাপ্ত বয়স্কদের দেয়া হয় ৩০ মাইক্রোগ্রাম। শিশুদেরকে ২১ দিনের ব্যবধানে দুই ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। ফাইজারের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শিশুদের শারিরীক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ১০ মাইক্রোগ্রাম টিকা দেয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন