চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

৫ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্রে উৎসে কর ৫ শতাংশ

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন: সঞ্চয়পত্রে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ থাকলে এর মুনাফার উৎসে কর দিতে হবে ৫ শতাংশ। আর ৫ লাখ টাকার বেশি থাকলে দিতে হবে ১০ শতাংশ। ১ জুলাই থেকে এই আইন কার্যকর করা হবে।

সোমবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে প্রেস বিফ্রিংয়ে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন: সঞ্চয়পত্রে সুদের ওপর ১০ শতাংশ ট্যাক্স আরোপের ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল বাজেটে। এটিকে কিছুটা শিথিল করা হয়েছে। ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত যারা সঞ্চয়পত্র কিনবেন তাদের সুদের ওপর ৫ শতাংশ ট্যাক্স দিতে হবে। আর যারা ৫ লাখ টাকার বেশি সঞ্চয়পত্র কিনবেন তাদের ট্যাক্স দিতে হবে ১০ শতাংশ।

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী বলেন: পারিবারিক বা অন্য সঞ্চয়পত্র করা হয়েছিল দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য। নিম্নআয়ের মানুষের জন্য বিনিয়োগের কোনও জায়গা নেই। তাদের টাকা বিনিয়োগের ব্যবস্থা করতে সঞ্চয়পত্র চালু করা হয়েছিল। এটি অর্থনীতির জন্য একটি বড় ক্ষেত্র। কিন্তু সরকারের দেওয়া এই সুযোগের অপব্যবহার হচ্ছে। ফলে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর বদলে ধনীরা লাভবান হচ্ছে।

তাই স্বচ্ছতা আনতেই সরকার এ উদ্যোগ নিয়েছে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন: কারণ একেক জন ধনী ব্যক্তি ২০-৩০টি অ্যাকাউন্টের বিপরীতে সঞ্চয়পত্র কিনছেন। এতে কে কত টাকা বিনিয়োগ করছেন বা সঞ্চয়পত্র কিনছেন সে সম্পর্কে সরকার সব সময় অন্ধকারে থেকে যাচ্ছে। ট্যাক্স আরোপ করার ফলে এই প্রবণতা কমে আসবে এবং অসংলগ্ন লেনদেন হলে দুদক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। এতে দুর্নীতিও কমবে। তবে পেনশনারদের বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধা বহাল থাকবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন: ‘সঞ্চয়পত্রের আদলে পৃথক বন্ড মার্কেটে বিনিয়োগ চালুর চিন্তা করা হচ্ছে। এ লক্ষ্যে কাজ চলছে। এটি হলে অর্থ বিনিয়োগের ঝামেলা কমবে।’

শেয়ার করুন: