চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

৫ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেল বছরের প্রথম সিনেমা

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন ছড়ানোয় একাধিক সিনেমার মুক্তি স্থগিত হলেও মুক্তি পেলো ‘ছিটমহল’। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) চলতি বছরের প্রথম সিনেমা হিসেবে এইচ আর হাবিব পরিচালিত ‘ছিটমহল’ মুক্তি পেল ৫টি সিনেমা হলে।

শুক্রবার দুপুরে পরিচালক চ্যানেল আই অনলাইনকে নির্মাতা জানান, ব্লকবাস্টার (যমুনা ফিউচার পার্ক), সিনেমাস্কোপ (নারায়ণগঞ্জ), সুগন্ধ্যা (চট্টগ্রাম, শঙ্খ (খুলনা), বৈশাখী (কালুখালী) এই সিনেমা হলগুলোতে ‘ছিটমহল’ প্রদর্শিত হচ্ছে।

এইচ আর হাবিব বলেন, এখন সিনেমা হলে দর্শক পাওয়া কঠিন। আরও ১০টি সিনেমা হলে ‘ছিটমহল’ চালাতে পারতাম কিন্তু ব্যবসায়িক দিক বিবেচনা করে সরে এসেছি। কমপক্ষে ১৫ হাজার টাকা করে খরচ হতো। মানুষ যদি না আসে সে কারণে এই খরচ উঠে আসাই মুশকিল হয়ে যাবে। সেজন্য শুধুমাত্র ৫টি সিনেমা হলে মুক্তি দিয়েছি। দর্শকের ভালো লাগলে হল বাড়াবো।

বিজ্ঞাপন

সিনেমাটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেন পিয়া জান্নাতুল, মৌসুমি হামিদ, আরমান পারভেজ মুরাদ, ডন, শিমুল খান, সজল।

চারপাশে দুটি দেশ, মাঝখানে এক অধিকারহীন জনপদ ও সেখানে বসবাসকারী মানুষদের জীবনযাপন নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘ছিটমহল’। ২০১৫ সালে শুরু হয়েছিল ‘ছিটমহল’র শুটিং।

বিভিন্ন জটিলতায় থেমে ছিল এর মুক্তি। বছর তিনেক আগেই সিনেমাটির পুরো কাজ শেষ হয়। নির্মাতা বলেন, ‘‘করোনার কারণেই ‘ছিটমহল’ মুক্তিতে দেরি হলো। গত বছর ইমপ্রেস টেলিফিল্মের কাছে টিভি ও ডিজিটাল রাইটস বিক্রি করেছি।”

১৯৪৭ সালের দেশভাগের করুণ অন্তঃক্ষরণের ৬৮ বছরের বঞ্চনা, যাপিত জীবনে আশা হঠাৎ আলোর ঝলকানি বিনিময়ের কাহিনী উঠে এসেছে ‘ছিটমহল’ সিনেমায়। ছিটমহল-এর বাসিন্দাদের বঞ্চনা নিয়ে জীবনযাপন। এমনই গল্প নিয়েই ‘ছিটমহল’ নির্মিত হয়েছে। বেশিরভাগ শুটিং হয়েছে পঞ্চগড়ের ছিটমহল অঞ্চলে।

বিজ্ঞাপন