চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

৫৯ লাখের ছবি, হল থেকে প্রযোজক পেয়েছেন ৬ লাখ টাকা!

প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির আগে বেশ শোরগোল ফেলেছিল দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত ছবি ‘তুমি আছো তুমি নেই’

প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির আগে বেশ শোরগোল ফেলেছিল দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত ছবি ‘তুমি আছো তুমি নেই’। পরিচালক ঝন্টু ও নায়িকা দীঘির একাধিক মন্তব্য ঘিরে সমালোচনাও কম হয়নি।

সেই অবস্থার মধ্যেই ছবির প্রযোজক সিমি ইসলাম কলি দেশের ২৫ সিনেমা হলে মুক্তি দেন ‘তুমি আছো তুমি নেই’। কিন্তু হিতে বিপরীত হয়, ঘটে ব্যবসায়িক বিপর্যয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার বিকেলে চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে আলাপে প্রযোজক সিমি জানান, ‘তুমি আছো তুমি নেই’ ছবির মাধ্যমে তিনি লোকসান গুনেছেন।

তিনি বলেন, ছবির বাজেট ছিল ৫৪ লাখ। মুক্তির আগে পোস্টারসহ অন্যান্য কাজে আরও ৫ লাখ টাকা খরচ হয়। সবমিলিয়ে বাজেট দাঁড়ায় ৫৯ লাখ টাকা। ২৫ সিনেমা হলে মুক্তি দিয়ে পেয়েছি ৬ লাখ টাকা। পোস্টার খচরটি উঠে এক লাখ টাকা লাভ হয়েছে।

এছাড়া সিনেমা হল থেকে আর কোনো টাকা পাননি বলে জানিয়েছেন সিমি ইসলাম কলি। তিনি মনে করেন, ছবির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যারা তারা নিজেরাও সাপোর্ট করেননি। বিধায় দর্শক ছবিটি দেখতে হলে যাননি। সিমি বলেন, ঘরের মানুষরাই আমার ক্ষতি করেছেন।

বিজ্ঞাপন

ছবির বাজেট নিয়ে আছে অস্পষ্টতা। ছবি সংশ্লিষ্টদের কেউ কেউ বলছেন, ‘তুমি আছো তুমি নেই’ ছবির বাজেট ছিলো ১৫ লাখ টাকা। এ বিষয়ে পাল্টা প্রশ্ন রেখে প্রযোজক বলেন, ছবিতে আমি বিনিয়োগ করেছি, অন্য কেউ কীভাবে বলেন এটা ১৫ লাখ টাকার ছবি?

সিমি বলেন, এই সিনেমা দিয়ে আমার পুরোটাই লোকসান। তবে আমি থেমে যাবো না। কাজ করে যাব। শিগগির আমার নতুন ছবি ‘ভুল মানুষ’ শুরু করতে যাচ্ছি। বুধবার মমতাজ আপাকে নিয়ে এ ছবির গানের রেকর্ডিং আছে।

গত ১১ মার্চ দেশের ২৫ প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়া এ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন দীঘি, আসিফ ইমরোজ, সিমি ইসলাম, অমিত হাসান, সুব্রতসহ অনেকেই।

প্রেক্ষাগৃহে সাড়া না পেলেও ছবিটি টেলিভিশন এবং ডিজিটাল সত্ব বিক্রি করে লোকসান কিছুটা পুষিয়েছেন প্রযোজক। গেল ঈদে চ্যানেল আইয়ের পর্দায় সিনেমাটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হয়।

ঠিক দুসপ্তাহ আগে ঈগলসের একটি নতুন ইউটিউবে প্রকাশ করা হয় ‘তুমি আছো তুমি নেই’। সেখানে এখন পর্যন্ত ৮২ লাখের বেশি দর্শক দেখেছেন। যেটি অল্পদিনে রেকর্ড পরিমাণ ভিউস!

প্রযোজক সিমি বলেন, পরিচালক বাজেট কম বলায় অন্যরা কেউ ছবিটি নিতে চাননি। ঈগলসে দিয়ে দেই। তারা মিউজিকসহ বেশ কিছু সংশোধন করে তাদের চ্যানেলে প্রকাশ করে। সেখান থেকে মানুষ বেশি উপভোগ করছে। তবে কত টাকা সেখান থেকে পাবো সেটি জানাতে চাইনা।