চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

৩৮তম বিসিএসে প্রতি পদের বিপরীতে ১৭১ জন

৩৮তম বিসিএসে প্রতি পদের বিপরীতে লড়বে ১৭১ জন। আবেদনের টাকা জমাদানের সময় সীমা শেষ হয়েছে রোববার সন্ধ্যা ৬ টায়। আর এতে দেখা যায়, ৩ লাখ ৮৯ হাজার পরীক্ষার্থী এবছর আবেদন করলেও টাকা জমা দিয়েছেন ৩ লাখ ৪৭ হাজার পরীক্ষার্থী। আবেদনকৃত প্রার্থীদের এ সংখ্যা অতীতের সকল বিসিএস পরীক্ষার আবেদনের চেয়ে কয়েক গুণ বেশি।

এর আগে ৩৭ তম বিসিএসে সর্বোচ্চ প্রার্থী ছিলো ২ লাখ ৪৪ হাজার। ৩৮তম বিসিএসে সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৩ লাখ ৪৭ হাজারে। যা পূর্বের তুলনায় প্রায় এক লাখ বেশি।

এ বছর ২০ জুন ২ হাজার ২৪টি শূন্য পদের জন্য ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন। গত ১০ জুলাই থেকে শুরু হয় আবেদন। চলে ১০ আগস্ট বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। কিন্তু ফরম পূরণের সময়ের পর ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত টাকা জমাদানের সমসয়সীমা নির্ধারিত থাকায় রোববার সন্ধ্যায় সম্পন্ন হয় এর আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম।

আর এতে দেখা যায় এবারে ২ হাজার ২৪ টি পদের বিপরীতে লড়বেন ৩ লাখ ৪৭ হাজার প্রার্থী। অর্থাৎ প্রতি পদের বিপরীতে ১৭১ জন।

বিজ্ঞাপন

অতীতের সকল রেকর্ডকে ভেঙ্গে দিয়েছে এবারের আবেদনের এ সংখ্যা।

এ বিষয়ে পিএসসি চেয়ারম্যান ড. সাদিক খান চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ‘বিসিএসের চাকুরিটা এমন একটা চাকুরি যেখানে কোন তদবির লাগেনা। প্রকৃত মেধাবীরা চাকুরি পাচ্ছে এখানে। যার কারণে আস্থার জায়গাটা এখানে আনেক বড়।’

তিনি আরও বলেন, ‘এখানে যারা পাশ করছে তাদের সবাই ক্যাডার না হলেও চেষ্টা চলছে নন ক্যাডারে চাকুরি দেয়ার। যার কারণে যারা সরকারি চাকুরি করতে আগ্রহী তাদের প্রথম পছন্দ বিসিএস।’

শেয়ার করুন: