চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

৩ হাজার ডলারের ফেরে আটকা মুসা ইব্রাহীম

ওশেনিয়ার সর্বোচ্চ পর্বত মাউন্ট কার্সটেঞ্জ পিরামিডে আটকে পড়া বাংলাদেশি পর্বতারোহী মুসা ইব্রাহীম উদ্ধার হলেও এবার আটকা পড়েছেন ৩ হাজার ডলারের ফেরে। তাদের উদ্ধারকারী হেলিকপ্টার কোম্পানির বাড়তি অর্থ দাবি করায় আবার বিপদের মুখে পড়েছে পর্বতারোহী এই দলটি।

ফেসবুকে এক পোস্টে মুসা জানিয়েছেন, আমাদের পাসপোর্ট অবৈধভাবে বাজেয়াপ্ত করে গৃহবন্দী করে রেখেছে তিমিকার হেলিকপ্টার কোম্পানি- এশিয়াওয়ান (AsiaOne)। উদ্ধার পেয়েছি বেস ক্যাম্প থেকে, কিন্তু উদ্ধার হচ্ছি না হেলি কোম্পানির হাত থেকে। অ্যাডভেঞ্চার কিন্তু এখনও শেষ হয়নি।

বিজ্ঞাপন

ব্যাখ্যা দিয়ে মুসা ইব্রাহীম লিখেছেন, যে হেলিকপ্টার কোম্পানি (এশিয়াওয়ান) আমাদের বেস ক্যাম্প থেকে নিয়ে এসেছে, তারা আমাদের পাসপোর্ট অবৈধভাবে বাজেয়াপ্ত করে গৃহবন্দী করে রেখেছে। তাদের দাবি- তাদেরকে তিনবার তিমিকা থেকে বেস ক্যাম্প পর্যন্ত ফ্লাই করার খরচ দিতে হবে (১১ হাজার ইউএস ডলার)। কিন্তু গতকাল রোববার তারা নিজেরাই দেরি করে সকাল ১০টায় বেস ক্যাম্পের দিকে গিয়েছিল, ততোক্ষণে আবহাওয়া খারাপ হয়ে গিয়ে হেলিকপ্টার ফিরে এসেছে তিমিকায়, যা কি না পুরোটাই হেলিকপ্টার প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব। কারণ আমরা সকাল ৬টা থেকে প্রস্তুত ছিলাম।

সোমবার তারা সকালে আমাদের বেস ক্যাম্পের পাশের একটা জায়গা থেকে প্রথমবার গিয়ে ফিরে আসে। আমরা দেখতে পেয়েছিলাম হেলিকপ্টার, কিন্তু তারা প্রথমবার উদ্ধার না করেই ফিরে আসে। দ্বিতীয়বার আমরা পতাকা হাতে নিয়ে দাঁড়িয়েছিলাম যেন হেলিকপ্টার দেখা মাত্রই তা উড়িয়ে তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারি এবং তা করেছি। এখন হেলিকপ্টার কোম্পানির কথা হলো, তাদেরকে পুরো তিনবারের টাকা দিতে হবে।

সবশেষে মুসা ইব্রাহীম লিখেছেন, সত্যরূপ, নন্দিতা এবং আমি – ৮ হাজার ডলার পর্যন্ত দিতে রাজি হয়েছি এবং সে মোতাবেক Franky Kowaas-এর প্রতিষ্ঠান মানােডা অ্যাডভেঞ্চারকে টাকা দেয়ার প্রক্রিয়া সত্যরূপ শুরু করেছে। ইতিমধ্যে সাড়ে চার হাজার ডলার দেয়া হয়েছে। কিন্তু হেলিকপ্টার কোম্পানি এশিয়াওয়ানের জ্যাকব-এর (+628122312558) দাবি- তাকে পুরো টাকাটা (১১ হাজার ডলার) দিতে হবে। চিন্তা করছি যে, ফিরতে পারবো তো দেশে???

ওশেনিয়া (পাপুয়া নিউগিনি, ইন্দোনেশিয়া) মহাদেশের সর্বোচ্চ পর্বত মাউন্ট কার্সটেঞ্জ পিরামিড জয় করার জন্য বাংলাদেশ ও ভারতের তিন সদস্যের টিমের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মুসা ইব্রাহীম। মাউন্ট কার্সটেঞ্জ জয় করতে গিয়ে প্রতিকূল আবহাওয়ায় বেজ ক্যাম্পে অটকা পড়ে যায় দলটি।

গত শনিবার শেষ হয়ে যায় তাদের খাবার। কিন্তু আবওহাওয়া অনুকূলে না থাকায় তাদের খাবার পাঠানো সম্ভব হয়নি। এমনকি রোববার তাদের উদ্ধার অভিযান শুরু করলেও আবহাওয়ার কারণে হেলিকপ্টার ল্যান্ড করতে না পেরে তাদের না নিয়েই ফেরত আসে। পরে আবহাওয়া অনুকূলে আসলে আটকে পড়া পর্বতারোহীদের উদ্ধার করে তিমিকা বিমানবন্দরে নিয়ে আসা হয়।

মুসা ইব্রাহীমের সঙ্গে আটকা পড়েছেন ভারতের দুই পর্বতারোহী সত্যরূপ সিদ্ধান্ত ও নন্দিতা। সত্যরূপের স্যাটেলাইটের মাধ্যমে পাঠানো বার্তায় বলা হয়, পাপুয়া নিউগিনির তিমিকা এয়ারপোর্টের অনুমতি পেতে ইতোমধ্যে চার ঘণ্টা সময় নষ্ট হয়েছে। তাদের যেন দ্রুত উদ্ধারে ব্যবস্থা নেয়া হয়।

বিজ্ঞাপন