চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

স্বামীর মুমূর্ষু অবস্থা দেখে ২০ দিন না খেয়ে স্ত্রীর সহমৃত্যু

স্বামীর মুমূর্ষু অবস্থা দেখে ২০ দিন না খেয়ে স্ত্রীর সহমৃত্যু

স্বামীর মুমূর্ষু অবস্থা দেখে একই শয্যায় মৃত্যুর কামনা করে অবশেষে সফল অঞ্জনা দেবী। ২০ দিন না খেয়ে থেকে শনিবার স্বামীর সাথেই মারা যান এই নারী। ভারতের অন্ধ্যপ্রদেশে স্বামীর প্রতি ভালোবাসার এমনই একটি দৃষ্টান্ত রেখেছেন তিনি। 

৬০ বছরের বিবাহিত জীবনে ৮২ বছর বয়সী অঞ্জনা দেবী, ৮৫ বছর বয়সী স্বামী ডিভি কোদনদরাম শর্মাকে ভালোবাসার বন্ধনে আগলে রেখেছিলেন। স্বামী ছিলেন মন্দিরের পুরোহিত। এমনকি তিনি অর্চনা সেবা সমিতির সভাপতিও ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

দীর্ঘ প্রায় ছয় মাস যাবত কোদানদারম শর্মা অসুস্থ অবস্থায় বিছানায় পরে ছিলেন। স্বামী অসুস্থ থাকলেও অঞ্জনা দেবীর ছিল না কোন শারীরিক অসুস্থতা।

বিজ্ঞাপন

পুত্রবধূ সুভাষিনী মতে, অঞ্জনা তাদের বলতেন যে তাঁর স্বামীর আগে তিনি মারা যাবেন। এমনকি তিনি আরও বলেছেন কনক দুর্গা দেবী স্বপ্নে তাকে বলেছিলেন যে তিনি কার্ত্তিকা মাসামে পুণ্যশ্রী হিসাবে মারা যাবেন।

তিনি আরও বলেন, আমার শশুরের অসুস্থতার সময় মা একটু হতাশ হয়ে পড়েন। তারপর ২০ দিন না খেয়ে থেকে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তিনদিন হাসপাতালেও ভর্তি ছিলেন তিনি। সেই সময় আমাদেরকে খুব জোর করতেন হাসপাতাল থেকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার জন্য। কারণ তিনি হাসপাতালের বিছানায় মৃত্যু চান না, বাড়ি যেতে চান। বাড়িতে নিয়ে আসা হলে তিনি আবারও খাওয়া বন্ধ করে দেন। আমরা খুব জোরাজুরি করলে হয়ত দু’চামচ ভাত মুখে দিয়েছিলেন।

অঞ্জানা দেবীর শেষ ইচ্ছে ছিল স্বামীর সাথে একই বিছানায় মৃত্যু। ঠিক শুক্রবার রাতে মারা যান স্বামী কোদনদরাম শর্মা এবং কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে মারা যান অঞ্জানা। সিনেমার মতই শেষ হলো তাদের দাম্পত্য জীবনের ছয় দশক।

Bellow Post-Green View