চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

২০২১ সালের মধ্যে রিজার্ভ হবে ৫০ বিলিয়ন ডলার: অর্থমন্ত্রী

২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশের বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ ৫০ বিলিয়ন ডলার হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির অনলাইন সভায় শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী এ কথা জানান।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, গত ২৮ আগস্টে রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৩৮ দশমিক ৯০ বিলিয়ন ডলার, যা অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি। প্রতি মাসে ৪ বিলিয়ন ডলার আমদানি ব্যয় হিসেবে এই রিজার্ভের অর্থ দিয়ে সাড়ে ৯ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো সম্ভব।

বিজ্ঞাপন

দেশের অবকাঠামো উন্নয়নে রিজার্ভের অর্থ ব্যবহার করা হবে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, যদি সরকারের স্পন্সর প্রজেক্ট থাকে সে ধরনের প্রজেক্টে যদি অর্থায়ন করি, একদিকে ঋণ বাড়ল না আরেকদিকে আমাদের টাকাটা নিজের ঘরেই রয়ে গেল এবং দেশের উন্নয়নে কাজে লাগাতে পারলাম।

তিনি বলেন, এখন নভেম্বর মাস এরপর ডিসেম্বর মাস, এর পরবর্তী ডিসেম্বর পর্যন্ত এ ১৪ মাসের ভেতরে বাংলাদেশের ফরেন এক্সচেঞ্জ রিজার্ভ হবে ৫০ বিলিয়ন ডলার।

রিজার্ভ থেকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে ঋণ দেয়ার পরিকল্পনা আছে কি না। এমন প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমার এখানে কোনো অবস্থান নেই। কারণ আমি টাকা নেবও না, ব্যয়ও করব না। এটি পরিকল্পিতভাবে সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাণিজ্যিকভাবে লাভবান হই সেভাবে কাজে লাগানো হবে।

অর্থমন্ত্রণালয়ের গত ১ নভেম্বরের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে দেশের রিজার্ভের পরিমাণ ৪১ বিলিয়ন ডলার ৫ লাখ ডলার। যা গত বছরের একই সময় ছিল ৩২ বিলিয়ন ৪৩ কোটি ৮ লাখ ডলার। অর্থাৎ এই এক বছরের ব্যবধানে রিজার্ভ বেড়েছে ৮ বিলিয়ন ৫৬ কোটি ৭ লাখ ডলার।