চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

১ জুলাই থেকে দার্জিলিঙের সব হোটেল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ

পর্যটকের অভাবে আগামী ১ জুলাই থেকে দার্জিলিঙের সব হোটেল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেখানকার হোটেল মালিক সংগঠন।

গত ৮ জুন পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজ্যের সব হোটেল খোলার নোটিশ দিয়েছে। তা সত্বেও সিদ্ধান্ত পাল্টাচ্ছে না দার্জিলিং হোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠনের সদস্যদের মতে, অদূর ভবিষ্যতে পর্যটক আসার কোনও সম্ভাবনা না থাকায় হোটেল চালু রাখা অর্থহীন হয়ে পড়েছে।

বিজ্ঞাপন

দার্জিলিং শহর ও সংলগ্ন অঞ্চলে মোট ৩৮০টি হোটেল রয়েছে, যেখানে প্রতি বছর প্রায় ৪.৫ লাখ পর্যটক সমাগম হয়। কিন্তু করোনা মহামারীর কারণে লকডাউন থাকায় আপাতত বেশ কয়েক দিন পাহাড়ে কোনও পর্যটক আসার সম্ভাবনা নেই। এই কারণে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে অ্যাসোসিয়েশন।

বিজ্ঞাপন

পর্যটন ব্যবসায়ীদের ধারণা, এই সিদ্ধান্তের প্রভাব পড়তে চলেছে দার্জিলিং-কালিম্পং পাহাড় থেকে ডুয়ার্স পর্যন্ত বিস্তৃত উত্তরবঙ্গ ট্যুরিস্ট সার্কিটের ওপরে। যদিও কালিম্পং ও ডুয়ার্সের হোটেল মালিকরা এখনও পর্যন্ত এমন সিদ্ধান্ত নেননি।

সংরক্ষণ ও পর্যটন অ্যাসোসিয়েশন-এর আহ্বায়ক রাজ বসুর মতে, করোনা সংকট দূর হলেও দীর্ঘদিন ভুগতে হবে পর্যটন ক্ষেত্রকে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত না হলেও দার্জিলিং-কালিম্পং পাহাড়ের ৬ হাজারেরও বেশি হোম স্টে-তে এই সময় পর্যটক রাখার ব্যাপারে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতগুলি অনুমোদন দিচ্ছে না। তার কারণে টান পড়েছে স্থানীয়দের রুজি-রোজগারেও।