চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

১০ বছরেও রায়ের কপি না পেয়ে জেল আপিল করতে পারেননি ৫২৯ জন আসামি

১০ বছরের বেশি সময় ধরে রায়ের কপি না পাওয়ায় ৫২৯ জন আসামি জেল আপিলই করতে পারেননি উচ্চ আদালতে। সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার দপ্তরের অনুসন্ধানে এমন তথ্য জানা যায়। আরো জানা যায়, ওই আসামিদের মধ্যে ৩৪০ জন সাজা খেটে বেরিয়ে গেছেন আর কারাগারে আছেন ১৮৯ জন।

সত্যতা স্বীকার করে হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার বলেছেন, জেল আপিলের জন্য রায়ে কপি সংগ্রহ করার দায়িত্ব কারা কর্তৃপক্ষের। তারাও বলেন দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট কারা কর্তৃপক্ষের।

বিজ্ঞাপন

পিরোজপুরের আসামি সগির গাজীর ২০০৫ সালে ৭ বছরের, ঢাকার মোহাম্মদ বাবুলের ২০০৩ সালে ৫ বছরের এবং একই জেলার আক্তার হোসেনের ২০০৩ সালে ১০ বছরের সাজা হয়। এরা সাজা খেটে বেরিয়ে গেলেও তাদের জেল আপিল হয়নি এখনো। গত বছর জেলা ভিত্তিক মামলা সমন্বয় কমিটি বিষয়টি জানিয়ে চিঠি দেয় সুপ্রিম কোর্টের লিগ্যাল এইড কমিটির কাছে। এ নিয়ে অনুসন্ধান চালায় সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার দপ্তর।

সাজা খেটে বের হয়ে যাওয়ার পর এখন এর প্রতিকার চেয়েছেন অনেকে।

বিজ্ঞাপন

জেল আপিলের জন্য সংশ্লিষ্ট আদালতের রায়ের কপি, বিজি প্রেসের ছাপানো কপি ও আসামিদের আবেদন প্রয়োজন। এর মধ্যে কারা কর্তৃপক্ষ রায়ের কপি পাওয়া যায়নি বলে বেশিরভাগ চিঠিতে লিগ্যাল এইডসহ সব পক্ষকে জানায়।

যোগাযোগ করা হলে হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার সাব্বির ফয়েজ জানিয়েছেন, রায়ের কপি সংগ্রহ করার দায়িত্ব কারাগারের হলেও সবার সমন্বিত উদ্যোগ থাকতে হবে।

আর ময়মনসিংহের ডেপুটি জেলার তোহিদুল বলেছেন, জেল আপিল হলে রায়ের কপি সংগ্রহ করার দায়িত্ব তাদের।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও রিপোর্টে:

Bellow Post-Green View