চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

১০৩ রানেই শেষ তামিমের দল

অসাধারণ বোলিংয়ে রুবেল হোসেন নিলেন শুরুর ৩ উইকেট। আরেক পেসার সুমন খানও ফেরালেন ৩ ব্যাটসম্যানকে। আমিনুল ইসলাম বিপ্লব বোলিংয়ে এসেই পেলেন সাফল্য। এ লেগস্পিনার ২ উইকেট তোলার পর মেহেদী হাসান মিরাজ যোগ দিলেন শিকার উৎসবে। নিলেন ২ উইকেট।

শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের জায়ান্ট স্ক্রিনে লেখা উঠল ‘মিরাজ সিটিং অন হ্যাটট্রিক’। কিন্তু তার আগেই যে তামিম ইকবাল একাদশের ইনিংস শেষ!

বিজ্ঞাপন

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ একাদশের বোলারদের জ্বলে ওঠার দিনে মাত্র ১০৩ রানে গুটিয়ে গেছে তামিমের দল। খেলতে পেরেছে সবে ২৩ ওভার। বৃষ্টির বাধায় ম্যাচ নেমে আসে ৪৭ ওভারে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

উদ্বোধনী ম্যাচের পর বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের দ্বিতীয় ম্যাচও হয়ে গেল লো-স্কোরিং। ওয়ানডে ম্যাচে টি-টুয়েন্টির রানটাও করতে পারেনি তামিমরা। প্রথম ম্যাচে হারের পর জয়ের খোঁজে মরিয়া লিটন-নাঈম-মাহমুদউল্লাহদের সামনে লক্ষ্যটা খুবই নাগালের।

অধিনায়কের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নামা যুবা টাইগার তানজিদ হাসান তামিমের ২৭ রানই ইনিংসের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ সংগ্রহ। এনামুল হক বিজয় করে যান ২৫ রান।

মেহেদী হাসান ১৯ ও সাইফউদ্দিনের ব্যাটে আসে ১২ রান। বাকি কেউ ছুঁতে পারেননি দুঅঙ্ক।

মিরপুরে বল হাতে আগুন ঝরিয়েছেন রুবেল। তার গতিময় বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি তামিম একাদশের টপঅর্ডার। দুই তামিম ও মিঠুনকে ফেরান এ পেসার। ৩ ওভারে মাত্র ১৬ রানে নেন তিন উইকেট। পরে জ্বলে ওঠেন দলের অন্য বোলাররাও।