চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হুয়াওয়ের নির্বাহীর মুক্তির পর দেশে পৌঁছেছে দুই কানাডিয়ান

হুয়াওয়ের নির্বাহী মেং ওয়ানঝুকে মুক্তি দেওয়ার পর চীনে গ্রেপ্তার হওয়া কানাডার দুই নাগরিকও চীনের কারাগার থেকে মুক্তি পেয়ে নিজ দেশ কানাডায় পৌঁছেছে।

শনিবার মেং ওয়ানঝুকে কানাডা থেকে মুক্তি দেওয়া হয় এবং এর পরপরই চীনও দুই কানাডিয়ান নাগরিক মাইকেল  স্পেভর ও মাইকেল কভরিগকে ছেড়ে দেয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিবিসি বলছে, দীর্ঘ আলোচনার পর মূলত হুয়াংয়ের শীর্ষ ওই কর্মকর্তাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। এরপর শুক্রবারই তিনি কানাডা ত্যাগ করেছেন। আর দুই কানাডিয়ান নাগরিকও বেইজিং ত্যাগ করেছেন। সাথে আছেন চীনে নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূত ডোমিন বারটন।

প্রতারণার অভিযোগে ২০১৮  সাল থেকে কানাডায় গৃহবন্দি ছিলেন হুয়াওয়ের নির্বাহী মেং ওয়ানঝু। তিনি হুয়াওয়ের প্রতিষ্ঠাতা রেন জেনফেং এর জ্যেষ্ঠ কন্যা। তাকে বন্দির পরপরই গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে চীনে গ্রেপ্তার হন দুই কানাডিয়ান মাইকেল  স্পেভর ও মাইকেল কভরিগ।

বিজ্ঞাপন

সমালোচকদের মতে, চীন মূলত রাজনৈতিক ফায়দা আদায় করে হুয়াওয়ের কর্মকর্তাকে মুক্ত করে আনতেই কানাডার দুই নাগরিককে আটক করেছিলো। তবে তা বেইজিং পুরোপুরি অস্বীকার করে আসছে। ২০১৮ সালে তাদেরকে আটক করা হয়।

দুই নাগরিকের মুক্তির বিষয়ে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো বলেছেন, তারা সম্পূর্ণ নির্দোষ। তবে এটি আমাদের জন্য ভালো সংবাদ যে, অবশেষে তারা পরিবারের কাছে ফিরে আসছে। তাদের সাথে চীনে নিযুক্ত কানাডার রাষ্ট্রদূত রয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, গত এক হাজার দিন তারা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে গেছেন। তারা কঠোর ধৈর্যশক্তি নিয়ে সেখানে অবস্থান করেছিলেন।

কানাডা থেকে মুক্তি পেয়ে হুয়াংয়ের নির্বাহী চীন সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। একই সাথে তিনি তার জীবনের অনেক কিছু উলটপালট হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন। বন্দী অবস্থায় তার জন্য বিপর্যয়কর সময় ছিলো বলে জানান তিনি।