চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হাড় হিম করে দেবে যে ছয়টি ভৌতিক সিনেমা

ক্রিসমাসের আগে আমেরিকার সবচেয়ে বড় উৎসব হ্যালোইন। পাশ্চাত্য ও প্রাচ্যে মৃত আত্মাদের স্মরণে পালিত হয় এ দিবস। এই দিনে নানারকম ভৌতিক সাজে সেজে উঠে মানুষ। চকলেট এবং মিষ্টি খাবার বিলি করা হয়। মানুষ বেড়াতে যায় ভূতের বাড়িতে। এই দিবস উপলক্ষে মুক্তি দেয়া হয় ভৌতিক সিনেমাও। অনেকেই আবার বাড়িতে বসে ভূতের সিনেমা দেখতে ভালোবাসেন। এক নজরে দেখে নিন হ্যালোইনে দেখার মতো কালজয়ী ছয়টি ভৌতিক ছবির তালিকা।

ইট: ২০১৭ সালের সাড়া জাগানো ভৌতিক ছবি ‘ইট’। ছবিটি শুধু দর্শকদের নয়, কাঁপিয়েছে বক্স অফিসও। উদ্বোধনী দিনে এটি আয় করে রেকর্ড ৫ কোটি ৪ লাখ মার্কিন ডলার, যা হরর ছবির ইতিহাসে সর্বোচ্চ। ছবিটি পুরো বিশ্বে আয় করেছে ৭০১.৭ মিলিয়ন ডলার। নির্মাণ করেছেন অ্যান্ডি মুশিয়েটি।

বিজ্ঞাপন

ইট চ্যাপ্টার টু: ‘ইট’-এর সিকুয়েল ‘ইট চ্যাপ্টার টু’। ১৯৮৬ সালে প্রকাশ পাওয়া স্টিফেন কিংয়ের উপন্যাস ‘ইট চ্যাপ্টার টু’- নিয়ে ছবিটি নির্মাণ করেছেন অ্যান্ডি মুশিয়েটি। ‘ইট’ ছবিতে প্রথমবার পেনিওয়াইজের সঙ্গে একটি ছোট শহরের সাত শিশুর সাক্ষাৎ হয়। আর ‘ইট চ্যাপ্টার টু’-তে সে শিশুরাই বড় হয় এবং তারা তাদের ছেলেবেলার সেই ভয়ংকর অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়।

ওয়ার্ল্ড ওয়ার জি: ব্র্যাড পিট প্রযোজিত ও অভিনীত জোম্বি অ্যাকশনধর্মী চলচ্চিত্র ‘ওয়ার্ল্ড ওয়ার জি’। গতানুগতিক জোম্বি সিনেমা থেকে কিছুটা আলাদা। বিশ্বব্যাপী ছবিটি আয় করেছে ৫৪০ মিলিয়ন ডলার।

দ্য মামি: ১৯৯৯ সালের অ্যাকশন-হরর ছবি ‘দ্য মামি’। ছবিটি পুরো বিশ্বে আয় করেছে ৪১৫,৯ মিলিয়ন ডলার। স্টিফেন সোমারস পরিচালিত এই ছবিতে অভিনয় করেছেন ব্রেন্ডন ফ্রেজার, রাচেল ওয়েইজ, জন হান্না, আর্নল্ড ভসলু, জোনাথন হাইডে এবং কেভিন জে ও’কনর।

দ্য মামি রিটার্ন্স: ‘দ্য মামি’র সিকুয়েল ‘দ্য মামি রিটার্ন্স’ পুরো বিশ্বে আয় করেছিল ৪৪৩.২ মিলিয়ন ডলার। ব্রেন্ডন ফ্রেজার, রাচেল ওয়েইজ, জন হান্না, আর্নল্ড ভসলু, ওডে ফেহর, প্যাট্রিসিয়া ভেলাস্কেজ এবং ডোয়াইন জনসন অভিনীত এই অ্যাকশন-অ্যাডভেঞ্চার ফ্যান্টাসি হরর ফিল্মটি পরিচালনা করেছেন স্টিফেন সোমারস।

দি এক্সজরসিস্ট: উইলিয়াম ফ্রায়েডকিন পরিচালিত এই ছবির গল্প জর্জটাউনের অদ্ভুত কিছু ঘটনা নিয়ে। ঘটনাগুলো ঘটার ফলে ১২ বছরের রেগান ম্যাকনেলের ব্যক্তিত্ব ধীরে ধীরে সম্পূর্ণ পাল্টে যায়।