চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হামাসের রকেটের জবাবে ইসরায়েলের মিসাইল হামলা

নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৫

গাজায় ইসরায়েলের মিসাইল হামলায় সিনিয়র এক কমান্ডারের মৃত্যু ও বহুতল ভবন ধ্বংসের প্রতিশোধ হিসেবে ইসরায়েলে কয়েক ডজন রকেট হামলা চালিয়েছে হামাস।

খবরে বলা হয়েছে, দক্ষিণ ইসরায়েলের বেশ কয়েকটি এলাকায় হামলা চালানো হয়, এতে সেদেরত এলাকায় এক শিশুর মৃত্যু হয়।

সোমবার থেকে শুরু হওয়া এই লড়াইয়ের তীব্রতা জাতিসংঘকে একটি ‘পূর্ণ যুদ্ধ’ বিষয়ে সতর্ক হতে প্ররোচনা দিচ্ছে।

চলমান পাল্টাপাল্টি সংঘর্ষে গাজায় ১৪ জন শিশুসহ ৬৫ জন এবং ইসরায়েলে সাতজন প্রাণ হারায়।

পূর্ব জেরুজালেমে মুসলিম ও ইহুদিদের পবিত্র স্থান আল আকসা নিয়ে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে কয়েক সপ্তাহ ধরে চলমান উত্তেজনার মধ্যে এই পাল্টাপাল্টি হামলা শুরু হলো।

ইসরায়েলের আরো কয়েক স্থানে ইহুদি ও আরব জনগোষ্ঠীর মধ্যে চলমান সহিংসতার কারণে বুধবার ৩৭৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েল পুলিশ। সেসময় ৩৬ জন অফিসারও আহত হয়।

এরই মধ্যে একশরও বেশি বিমান ও রকেট হামলা চালানো হয়েছে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু জানান, সহিংসতায় বিধ্বস্ত শহরগুলিতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার কাজে পুলিশকে সহায়তা করতে তিনি সেনাবাহিনী পাঠানোর কথা ভাবছেন।

সাম্প্রতিক এসব হামলাকে ‘নৈরাজ্য’ হিসেবে ঘোষণা করে ভিডিও বার্তায় বলেন, ইহুদিদের উপর হামলা চালানো আরব জনগণ এবং আরবদের উপর ইহুদিদের চালানো হামলাকে কোনোভাবেই ন্যায়সঙ্গত বলা যাবে না।

তিনি যোগ করেন, দেশের বাইরের শত্রু ও দেশের ভেতরের বিক্ষোভকারীদের হাত থেকে ইসরায়েলের জনগণকে বাঁচাতে সব ধরনের শক্তি আমরা প্রয়োগ করবো।

ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষ এক টুইট বার্তায় ইসরায়েলের ‘সামরিক আগ্রাসন’ এর প্রতি তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেছে, এটা ইতিমধ্যে অবরুদ্ধ ২০ মিলিয়ন জনগণকে ট্রমার মধ্যে নিয়ে গেছে।

বিজ্ঞাপন